Press "Enter" to skip to content

কংগ্রেস দেখিয়ে দিল নিজেদের চরিত্র! মিথ্যা প্রচার করে সুভাষচন্দ্র বসুকে চূড়ান্ত অপমান করল কংগ্রেস

নেতাজি এমন এক ব্যক্তিত্ব যার জন্ম আছে কিন্তু মৃত্যু নেই। আজও তিনি বেঁচে আছে কোটি কোটি ভারত বাসীর হৃদয়ে।যার জন্মদিন থাকলেও তাহার মৃত্যু কোথায় বা কবে হয়েছে তা সঠিক ভাবে কেউই জানে না। এমন কি সরকারি ভাবে তার মৃত্যু নিয়ে কোনো ঘোষণা আজ অব্দি করা হয়নি। কিন্তু এর সভাপতি রাহুল গান্ধীর এক টুইট আজ গোটা ভারতবর্ষে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে। নেতাজির 123 তম জন্মদিবস এ জাতীয় দল টুইট করেছে তাইহুকু বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে নেতাজির। ছবি সমেত এক টুইট এ উল্লেখ করেছে 18 আগস্ট 1945 এ মৃত্যু হয়েছে সুভাষচন্দ্র বোস এর। দেশের একটা জাতীয় দল হয়ে এমন জঘন্যতম কাজ করার জন্য আজ তীব্র নিন্দার মুখে পড়েছে।

জানিয়ে দি, গান্ধী পরিবারকে দেশের কাছে বড় করে দেখানোর জন্য এবং বাকি মহানপুরুষদের অবদান কম করে দেখানোর জন্য কংগ্রেস ও ইংরেজরা ভারতের পাঠ্যপুস্তকে শুধুমাত্র গান্ধী ও নেহেরুর মনগড়া গল্প লিখে ভরিয়েছে এবং আসল হিরোদের কাহিনী বিকৃত করেছে অথবা মিথ্যা গুজব রোটিয়েছে। অনেক সময় নেতাজির মৃত্যু নিয়ে সরকার অনেক তদন্ত করছে কিন্তু নেতাজির মৃত্যু নিয়ে সঠিক তথ্য আজ ও উঠে আসনি। অনেক এ মনে করেন নেতাজির মৃত্যু তাইহুকু বিমান দুর্ঘটনায় হয়েছিল কিন্তু সেটা যে কতটা সত্যি তা আজ ও প্রমান হয়নি।আবার এটা ও অনেক এ মনে করে যে তিনি অন্তধান এ ছিলেন।আবার অনেকাংশেই মনে করেন তথাকথিত কংগ্রেস সরকার এর প্ররোচনায় খুন হয়েছিল এই মহান মানুষটি।

বছর দুই এক আগে এক তথ্য উঠে আসে এক ফরাসি অধ্যাপক জেবিপি মরে দাবি করেন নেতাজির মৃত্যু হয়েছিল ভিয়েতনাম এর এক জেল এ।তিনি বলেন নেতাজির মৃত্যুর সমাধান করতে পারে এক ফাইল যেটি ফরাসি সরকার একশো বছর আর জন্য বন্ধ করে রেখেছে এই চাঞ্চল্যকর কর তথ্য উঠে আসার পর মোদি সরকার জোর কদমে তদন্ত আরম্ভ করে।

মরে দাবি করে নেতাজির শেষ জীবন কাটে ভিয়েতনাম এর সাইগনে। সেখানে বোট কেটিনাট জেল এই বন্দি থাকা অবস্থায় মৃত্যু হয় বোস এর।কিন্তু ফরাসি সরকার জানিয়ে দিয়েছে কোনো মত এই এই ফাইল দেখানো হবে না ফরাসি সিক্রেট সার্ভিস থেকে পাওয়া এই তথ্য থেকে ভারত সরকার কে একটি চিঠি ও লেখেন মরে। তখন মোদি সরকার আর নেতৃত্বে অন্তধান সংক্রান্ত নথি খতিয়ে ঢুকতে একটি উচ্চ পর্যায়ে এর কমিটি গঠন করেন।এবং সেই কমিটি আজ ও নেতাজির মৃত্যু সম্পর্কিত তথ্য নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে।

কিন্তু আজ কংগ্রেস এর ভণ্ডামি আরো একবার সবার মাথা নীচু করলো। নিজেদের মিথ্যা এজেন্ডা চালানোর জন্য কংগ্রেস কতটা নিচে নামতে পারে তা আজ সবার সামনে প্রকাশিত হলো। নিজেদের রাজনীতি চমকানোর জন্য এবং গান্ধী পরিবারকে দেশের সর্বেসর্বা প্রমান করার জন্য কংগ্রেস দেশের মহাপুরুষ সুভাষচন্দ্র বসুর সম্পর্কিত ভুল তথ্য ও তারা প্রচার করতেও পিছুপা হবে না। অবশ্য গান্ধী পরিবার ভুল প্রচার করলে ও গোটা ভারতবাসী জানে “ভগবান এর কখনো মৃত্যু হয় না।” তিনি আজ ও উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে বিরাজ করছে প্রতিটি ভারতবাসীর অন্তরে।

8 Comments

  1. Hey check out high line pointe, run by adeline bababikov: 1291 South Ulster street, denver co 80231 manager@highlinepointe phone: 720-513-3865

Leave a Reply

Your email address will not be published.