in , ,

হিন্দুদের হুমকি দেওয়ার পর ,এবার মহিলাদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন কংগ্রেস নেতা কমলনাথ।

কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা তথা মধ্যপ্রদেশে রাজ্যের প্রদেশ অধ্যক্ষ কমলনাথ এখন তিনি নিজের মন্তব্যের জন্য লাগাতার বিতর্কের মধ্যে রয়েছেন। সামনে মধ্যপ্রদেশের নির্বাচন তার আগে কমলনাথের বিতর্কিত মন্তব্য রাজনৈতিক মহল তোলপাড় করে তুলেছে। কিছুদিন আগেই কমনাথ কমলানাথ RSS কে ব্যান করে দেওয়ার কথা বলেছেন। শুধু এই নয় দুদিন আগে কমলনাথ বলেছেন নির্বাচনের পর হিন্দুদের দেখে নেবেন। এই সমস্থকিছু নিয়ে লাগাতার কংগ্রেকে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। বিগত দিনে কমলানাথ মুসলিম নেতাদের বলেছেন আপনারা নির্বাচিন অবধি সতর্ক থাকুন তারপর হিন্দুদের দেখে নেব। কমলনাথের মন্তব্য নিয়ে বিজেপি কংগ্রেসকে হিন্দু বিরোধী পার্টি বলে অভিহিত করতে শুরু করেছে।

এই বিতর্ক এখন ঠান্ডা হয়নি তারমধ্যে আরো একটা বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেছেন কমলনাথ। ভূপালে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে গিয়ে কমলনাথ বলেন মহিলাদের কোটা আর সাজসজ্জার ভিত্তিতে টিকিট দেওয়া হয়না। আসলে এক সাংবাদিক কমলনাথকে জিজ্ঞাসা করেন যে মহিলাদের কেন কম টিকিট দেওয়া হয়েছে। উত্তরে কমলনাথ বলেন “দেখুন যে মহিলারা জিতবে তাদের টিকিট দেওয়া হয়েছে। তবে কোটা আর সাজসজ্জার রাস্তায় আমরা যায়নি।”

কমলনাথের মন্তব্যের উপর মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং বলেন, আমি খুব দুঃখ বোধ করছি যে মহিলাদের সম্পর্কে একজন এত বরিষ্ঠ নেতা এই সকল মন্তব্য করেন। শিবরাজ বলেন, ” কমলনাথের বোঝা উচিত যে মহিলারা দেশের সাজসজ্জা নয় বরং এই কন্যা, মহিলারা ভারতের গঙ্গা-গীতা-গায়ত্রী, সিতা-সত্য-সাবিত্রী, দুর্গা-লক্ষ্মী-সরস্বতী।”

মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান টুইটারেও কংগ্রেসকে এই নিয়ে আক্রমণ করে বলেন , মধ্যপ্রদেশের ভূমি মা, বোনকে শ্রদ্ধা করতে শেখায় কিন্তু কংগ্রেস সেই সঙ্গস্কৃতি নষ্ট করছে। তাই কংগ্রেসকে প্ৰদেশে আসতে দেওয়া হবে না।

কাশ্মীর ইস্যুতে পাক ক্রিকেটার আফ্রিদীর মন্তব্যে, পাকিস্থানকে পাল্টা জবাব দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

“আমি রাহুল গান্ধীকে নেতা মনে করি না, উনি নেতা হওয়ার যোগ্য নন” : হংসরাজ ভরদ্বাজ, কংগ্রেস নেতা।