Press "Enter" to skip to content

“রামায়ণ ও মহাভারত দুটোই মহিলা বিদ্বেষী, হিন্দু ধর্ম ঘৃণায় পরিপূর্ণ”: কংগ্রেস, আধিকারিক মন্তব্য।

একদিকে হিন্দু সাজার চেষ্টা করছে অন্যদিকে ের বাকি সদস্যরা মুসলিমদের খুশি করতে হিন্দু বিরোধী কার্যকলাপ করছে। রাহুল গান্ধী নিজেকে হিন্দু ব্রহ্মণ বলে ঘোষণা করে দিয়েছে অন্যদিকে কার্যকর্তা বলছেন একবার ভোটে জিতে গেলে হিন্দুদের দেখে নেব।যেভাবে শিবসেনার আধিকারিক খবরের কাগজ ‘সামনা’ সেই একইভাবে ের আধিকারিক খবরের কাগজ ‘ন্যাশনাল হেরাল্ড’। এই খবরের কাগজেই তাদের সমস্থ মন্তব্য জানায়। সম্প্রতি ের এই আধিকারিক খবরের কাগজে সম্পর্কে কুমন্তব্য করা হয়েছে। ন্যাশনাল হেরাল্ড এ বলা হয়েছে হিন্দু মহাকাব্য মহাভারত নারী বিরোধী গ্রন্থ।

ন্যাশনাল হেরাল্ড হিন্দুদের উপর ভয়ঙ্করভাবে ক্ষোপ উগরে দিয়েছে। হিন্দু ধৰ্মকে আক্রমণ করে ন্যাশনাল হেরাল্ড রামায়ণ-মহাভারতকে নারী বিদ্বেষী ও হিংসায় পরিপূর্ণ মহাকাব্য বলে দাবি করেছে। আসলে কংগ্রেস মুসলিমদের খুশি করতেই সনাতন ধর্মের গ্রন্থগুলোকে এইভাবে অপমান করেছে।

এই ন্যাশনাল হেরাল্ড এর ইস্যুতেই সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী জামিন নিয়ে জেলের বাইরে রয়েছে।৫০০০ কোটি টাকার ন্যাশনাল হেরাল্ড কেলেঙ্কারি মামলায় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও তার মা সোনিয়া গান্ধী জামিন নিয়ে জেলের বাইরে আছেন।
ন্যাশনাল হেরাল্ড মহাভারত সম্পর্কিত একটা ছবি দিয়ে লিখেছে হিন্দু মহাকাব্য এ নারীদের শোষণ করা হতো। রামায়ণ মহাভারত হিংসা ও ঘৃণায় পরিপূর্ন বলে দাবি করেছে কংগ্রেসের আধিকারিক কাগজ।

তবে ইসলাম বা খ্রিষ্ঠান ধৰ্ম সম্পর্ক এই ধরণের কোনো মন্তব্য করার সাহস কংগ্রেস কখনো দেখায়নি। আসলে কংগ্রেসের প্লান এটাই। কিছুদিন আগেই কমলনাথ মুসলিম নেতাদের সাথে বৈঠকে বলেছেন যে ভোট পর্যন্ত একটু সাবধানে থাকুন, ভোট পেরোলেই হিন্দুদের দেখে নেব।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.