Press "Enter" to skip to content

“ক্ষমতায় এলে বিজেপি নেতাদের ফাঁসি ও আতঙ্কবাদীদের ১ কোটি টাকা দেওয়া হবে”: হাজী সাঈদ, কংগ্রেস নেতা।

জম্মুকাশ্মীরের একটা স্থানীয় জিহাদি রাজনৈতিক পার্টি ন্যাশনাল কনফারেন্স যার প্রমুখ কট্টরপন্থী ফারুক আব্দুল্লাহ। এই ন্যাশনাল কনফারেন্স, আতঙ্কবাদী ও কংগ্রেসের মধ্যে অনেক গভীর সম্পর্ক রয়েছে যা বরাবর দেশের মিডিয়া জনগণের থেকে লুকিয়ে রাখে। এর মধ্যে একটা সম্পর্কের বিষয়ে হয়তো কিছুজন অবগত থাকবেন। রাজস্থানের বর্তমান কংগ্রেসি উপমুখ্যমন্ত্রী সাচীন পাইলটের পত্নী সারা আব্দুল্লা, ফারুক আব্দুল্লাহর মেয়ে। অর্থাৎ ফারুক আব্দুল্লাহ সাচীন পাইলটের শশুর মশাই।যাইহোক, ১ সপ্তাহ আগেই ন্যাশনাল কনফারেন্সের এক নেতা ঘোষণা করেছিলেন, যদি তারা কংগ্রেসের সাথে জোট বেঁধে জম্মুকাশ্মীরে ক্ষমতায় আসে তাহলে ভারতীয় আর্মিকে আন্টি টেরর অপেরাশন করতে দেওয়া হবে না।

তবে এটা ছিল কংগ্রেসের সহযোগী দল ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতার মন্তব্য। তবে এখন কংগ্রেসের নেতারা জঙ্গি, আতঙ্কবাদীদের লোভ দেখানোর জন্য যে কার্য শুরু করেছেন তা ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতাদের হার মানিয়ে দিয়েছে। কংগ্রেসে পার্টির নেতারা জঙ্গি, আতঙ্কবাদী, কট্টরপন্থীদের খুশি করার জন্য যে ঘোষণা করেছেন তা শুনলে যেকোনো ভারতীয়র লোম খাঁড়া হয়ে যাবে।

কংগ্রেস পার্টির বরিষ্ট নেতা হাজী সাঈদ খান আতঙ্কবাদীদের জন্য ১ কোটি টাকার পুরস্কার ও সরকারি চাকরির ঘোষণা করেছেন। শুধু এই নয়, হাজী সাঈদ ঘোষণা করেছেন যদি কংগ্রেসদ ক্ষমতায় আসে তবে যতজন আতঙ্কবাদী জেলে বন্দি রয়েছে প্রত্যেককে মুক্ত করা হবে। শুধু এই নয়, হাজী সাঈদ বলেছেন কংগ্রেস পার্টি এমন আইন আনবে যার মাধ্যমে বিজেপি নেতা ও কার্যকর্তাদের ফাঁসি দেওয়া হবে যারা আতঙ্কবাদীদের মারার জন্য ভারতীয় সেনার সাহায্য করেছে।


ভারতের যে কোনো ছোট বাচ্চাও এটা জানে যে আতঙ্কবাদ ও পাকিস্থান যেকোনো প্রকারে কাশ্মীরকে ভারত থেকে আলাদা করতে চাই। তাই এই পরিস্থিতে কংগ্রেসের বরিষ্ট নেতা দ্বারা ঘোষণা করা বক্তব্য কংগ্রেস পার্টির আসল রূপ ব্যাক্ত করে। হাজী সাঈদ এর ঘোষণা নিয়ে মিডিয়া তোলপাড় হলেও দেশের দালাল ও বিক্রিত পত্রিকার এই ইস্যুতে কোনো ডিবেট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত করেনি।

হাজী সাঈদ কাশ্মীরকে জান্নাত এবং আতঙ্কবাদদের নিরীহ মুসলিম বলেও মন্তব্য করেছেন। হিন্দুত্ববাদী ও রাষ্ট্রবাদী সংগঠনগুলি এই নিয়ে তুমুল তোলপাড় শুরু করেছে এবং কংগ্রেসের বিরুদ্ধে একটা শ্লোগানের ডাক দিয়েছে। ” কংগ্রেস কা হাত, আতঙ্কবাদ কা সাথ”- এই শ্লোগান তুলে কংগ্রেসকে ধিক্কার জানিয়েছে রাষ্ট্রবাদীরা।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.