Press "Enter" to skip to content

ঝড়, বৃষ্টি সব স্থিতিতে শত্রুর ঘরে ঢুকে মারতে হাজির হলো অ্যাপাচে হেলিকপ্টার! পাক সীমান্তে করা হলো নিযুক্তি

জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর থেকেই ভারত আর পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। আর এই উত্তেজনার সময়ে আমেরিকায় নির্মিত আটটি অ্যাপাচে হেলিকপ্টারকে (AH-64 Apache) মঙ্গলবার পাঠানকোটে এয়ারবেসে নিযুক্ত করার হচ্ছে। ভারতীয় বায়ুসেনার লড়াই ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। অ্যাপাচে বিশ্বের সবথেকে উন্নত এবং বহু ভূমিকা যুক্ত লড়াকু হেলিকপ্টার। বর্তমানে আমেরিকার সেনা এই হেলিকপ্টার ব্যাবহার করছে।

বায়ুসেনায় আটটি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার যুক্ত হওয়ার পর সেনার শক্তি যে অনেকটাই বৃদ্ধি পাবে সেটা বলাই বাহুল্য। পাঠানকোট এয়ারবেসে বায়ুসেনা প্রধান এয়ারচীফ মার্শাল বিএস ধানোয়ার উপস্থিতিতে এই মারক হেলিকপ্টার ভারতীয় সেনায় যুক্ত করা হবে। ভারত সরকার হাতিয়ার বানানো কোম্পানি আমেরিকার বোয়িং এর সাথে ৪১৬৮ কোটি টাকায় ২২ টি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার কেনার চুক্তি করেছে। ২০২০ সালের মধ্যে ভারত আমেরিকা থেকে ২২ টি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার পেয়ে যাবে।

পাঠানকোট এয়ার বেস পাকিস্তানের সীমান্ত থেকে ৩০ কিমি দূরে। ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর ভারত পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনার বাড়ার জন্য পাঠানকোট এয়ারবেসে এই মারক হেলিকপ্টার নিযুক্ত করাকে রণনীতির অংশ বলে মানা হচ্ছে। আর এরজন্য এই সিদ্ধান্ত পাঠানকোট এয়ারবেসে রাজনৈতিক গুরুত্ব দেখেই নেওয়া হয়েছে। অ্যাপাচে হেলিকপ্টার বিশ্বের সবথেকে বড় ভুমিকার যুদ্ধ হেলিকপ্টারের মধ্যে একটি। অত্যাধুনিক এবং মারক ক্ষমতা সম্পন্ন এই এই হেলিকপ্টার দিয়ে চীনের সীমান্ত গুলোকেও কভার করা সম্ভব হবে।

you're currently offline