Press "Enter" to skip to content

মধ্যপ্ৰদেশে রাহুল গান্ধী ও কমলনাথের ভন্ডামির পর্দাফাঁস করলেন পূর্ব মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান।

কিছুদিন আগে ের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হয়েছে সেখানে জয়লাভ করেছে ের তরফে ের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে নাম ঘোষণা করা হয়েছে ের। ক্ষমতায় আসার আগে ঘোষণা করেছিলেন, যদি তারা মধ্যপ্রদেশে জয়লাভ করে তবে ১০ দিনের মধ্যে কৃষিঋণ মাফ হয়ে যাবে। এমনকি শপদ গ্রহণের পর দিন কমলানাথ কৃষি ঋণ মাফের নামে এক চিঠিতে স্বাক্ষর করেন।

কিন্তু চিঠিতে স্বাক্ষর সম্পন্ন হলেও আসলে মধ্যপ্রদেশের ের কাজ নাম মাত্রও হয়নি হলে জানা গেছে। কৃষি ঋণ নিয়ে কংগ্রেসের এই ভন্ডামির পুরো মুখোশ খুলে দিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা শিবরাজ সিং চৌহান। কংগ্রেসের সমস্ত মিথ্যা রাজ্যবাসীর কাছে তুলে ধরলেন মধ্যপ্রদেশের পূর্ব মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। এই ব্যাপারে সমস্ত তথ্য শিবরাজ সিং চৌহান নিজের টুইটার আকাউন্ট দিয়ে টুইট করেছেন।

শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর এখন সম্পূর্ণ আলাদা সুর গাইছে। চৌহান বলেছেন এখন কংগ্রেস পার্টির তরফে জানানো হয়েছে যে, ১০ দিনের মধ্যে যে ঋণ মাপ করার কথা আমরা বলেছিলাম সেটা সম্ভব নয় এর জন্য আমাদের ৩১ শে মার্চ ২০১৯ পর্যন্ত সময় লাগবে। আর সমস্ত কৃষকদের ঋনের পরিমাণ মোটামুটি কয়েক লক্ষ্য টাকা হয়ে রয়েছে, কিন্তু কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে যে, মাত্র ১.৫০ লাখের মধ্যে যদের ঋণ রয়েছে শুধুমাত্র তাদের ক্ষেত্রেই এই ঋণ মুকুব করা হবে। বাকি টাকা কোনো ভাবেই ছাড় পাবেন না কৃষকরা।

আর কংগ্রেসের এই চালবাজির কথা সকলের সামনে তুলে ধরতে মধ্যপ্রদেশের পূর্ব মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান জানিয়েছেন যে, কংগ্রেসের এই মিথ্যাচারের জন্য কৃষকদের ফল ভোগ করতে হচ্ছে। কারণ কংগ্রেস চালাকি করে বলেছে যে ৩১ শে মার্চের পর ঋণ মুকুব হবে তাহলে এই এতদিনের যে সুদ সেটা কে বহন করবে। সেই সুদের পরিমাণও তো কৃষকদের উপর পড়বে। উনি জানিয়েছেন যে, আমি এখন বেঁচে রয়েছি। আমার নজর রয়েছে সমস্ত কৃষকদের উপর। তাই এইভাবে কৃষকদের বোকা বানানো যাবে না। শুধু তাই নয়, কংগ্রেস যে সমস্থ শর্তের কথা বলেছে সেই শর্ত অনুযায়ী, মাত্র ৯% ের ঋণ মাফ হতে পারবে বলে জানান চৌহান।
#অগ্নিপুত্র

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.