Press "Enter" to skip to content

শেষে জোর করে ভিডিও করে নিজেদের শান্তির দূত প্রমাণ করতে চাইল পাকিস্তান!

আজ অনেক নাটকের পর পাকিস্তানের হাত থেকে মুক্ত হল। গোটা ভারত জুড়ে আজ খুশির মেজাজ। ঘরের ছেলে ঘরে ফিরেছে। কিন্তু ের উপর দিয়ে কি গেছে সেটা অভিনন্দনই জানে। সকাল থেকে দেশের তামাম মিডিয়া আর দেশের জনগণ অভির জন্য অপেক্ষা করছিল। বারবার মিডিয়াতে উঠে আসছিল এই অভিকে ছাড়া হল।

কিন্তু তেমন কিছুই হয়নি। রাত ৯ টার পর অভিকে পাকিস্তানের আটারি বর্ডারে আনা হয়। আর সেখান থেকে বর্ডার পাশ করে ওয়াঘাতে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয় অভিকে। অভির চোখে এখনো সেই আগুন ছিল, যেই আগুন নিয়ে ও মিগ ২১ এ বসে এফ ১৬ বিমানকে উড়িয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল।

ফাইল ছবি

কিন্তু পাকিস্তান উপরে যতই ভালো মানুষ সাজুক, ভিতরে যে ওরা কতটা জানোয়ার সেটা প্রমাণ করল অভিকে দিয়ে বানানো ওদের ১ মিনিট ২৪ সেকেন্ড এর ভিডিও। এইটুকুর ভিডিওতে কমপক্ষে ১৮ টা কাট! একটা সিনেমাতেও মনে হয় এত কাট হয়না। ভিডিও দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে, ওটা পাকিস্তানের বানানো একটা ফেক প্রোপাগান্ডা ভিডিও।

ওই ভিডিওতে অভি বলছে, পাকিস্তানের সেনা তাঁর সাথে খুব ভালো ব্যাবহার করেছে। এমনকি ভারতীয় মিডিয়া বাড়িয়ে চরিয়ে লিখে পাকিস্তানকে বদনাম করতে চাইছে। এই ভিডিও শুট করার জন্যই যে অভিকে ছাড়তে এত দেরি করল পাকিস্তান সেটা এবার স্পষ্ট।

অভিকে দিয়ে জোর করে এই ভিডিও বানিয়ে এবং সেই ভিডিও বারবার শুট করে পাকিস্তান জেনেভা কানেকশন এর উলঙ্ঘন করেছে। জেনেভা কানেকশন অনুযায়ী যুদ্ধ বন্দিকে কোনরকম ভাবে জোর করা যাবেনা। কিন্তু ইমরান খান নিজের ছবি সবার সামনে ভালো করার জন্যই এই কর্ম করে বসলো।

 

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.