Press "Enter" to skip to content

লাহোরে পরিবেশ দূষণের জন্য মূল দায়ী ভারত ও মোদী: ফাওয়াদ চৌধুরী, পাকিস্তানের মন্ত্রী।

কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের আক্রোশ এখনও কমেনি। পাকিস্তান লাগাতার সবক্ষেত্রে মোদীকে দোষারোপ করতে ব্যাস্ত হয়ে পড়েছে। পাকিস্তানের নেতা মন্ত্রীরা এখন নতুন ইস্যু তুলেছেন যার জন্য পুরো পাকিস্তান হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছে। ইমরান খানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী তার নিজের ব্যর্থতাকে ঢাকা দিতে ভারতের মাথায় দোষ চাপিয়ে দিয়েছেন। পাকিস্তানের দূষণের প্রভাব বেড়ে চলাকে পাকিস্তানের মন্ত্রী ভারতের ও মোদীর দোষ বলে দাবি করেছেন। ফাওয়াদ চৌধুরী বলেছেন, পাকিস্তানের লাহোর শহরে দূষণের পরিমাণ ভারতের বাঘার তুলনায় অর্ধেক।

ফাওয়াদ বলেছেন, দিল্লি থেকে অমৃতসর পর্যন্ত ফসল কাটার পরে যে আগুন লাগানো হচ্ছে তা একটি বিশাল পরিবেশগত সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি টুইটে লিখেছেন, “জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মঙ্গলবার মন্ত্রিসভায় বলেছিলেন যে লাহোরের দূষণের সবচেয়ে বড় কারণ সীমান্তের ওপারের পরিস্থিতি। দিল্লি থেকে অমৃতসর পর্যন্ত ফসল কাটার পরে, ক্ষেতগুলিতে আগুন একটি বড় বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মোদী সরকার প্রতিটি ফ্রন্টে ব্যর্থ হয়েছে। দায়িত্বহীন সরকারগুলি একটি অভিশাপের মতো। ”

পরিবেশ দূষণ নিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরে একটা রিপোর্ট এসেছিল। সেখানে বলা হয়েছিল যে ২৯ সে অক্টোবর লাহোর শহর বিশ্বের সবথেকে দূষিত শহর হিসেবে উঠে এসেছে। এমন রিপোর্ট আসার পরই পাকিস্তানের মন্ত্রী বলেছেন যে পাকিস্তানের পরিবেশ দূষণের জন্য মূলত ভারত ও সেখানের সরকার দায়ী। মিডিয়া রিপোর্টে, লাহোরের ফলে সৃষ্ট দূষণকে যানবাহন এবং শিল্প থেকে বিষাক্ত নির্গমন, বিল্ডিং সাইটগুলি থেকে ধুলা বয়ে যাওয়া এবং জঞ্জাল থেকে বের হওয়া ধোঁয়া এবং খড় পুড়ে যাওয়ার জন্য দায়ী করা হয়েছে। কিন্তু পাকিস্তানের মন্ত্রী পরিবেশ দূষণ এর জন্য ভারতকে দায়ী করছেন। অন্যদিকে ভারতের পরিস্থিতি দেখলে ভারত লাগাতার দূষণ কমিয়ে দেশে গাছ পালার সংখ্যা বৃদ্ধি করেছে।