Press "Enter" to skip to content

মোদী সরকারের থেকে কোন পুরস্কার না পেয়ে বিজেপিক ভোট না দেওয়ার আবেদন করলো একদল ফিল্ম নির্দেশক!

কেন্দ্রে যখন কংগ্রেস ক্ষমতায় ছিল, তখন ধরে ধরে সিনেমা নির্মাতাদের পদ্ম পুরস্কার, রাজীব গান্ধী পুরস্কার এবং অনেক অনেক পুরস্কার দেওয়া হত। কিন্তু কেন্দ্রে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সিনেমা নির্মাতাদের অহেতুক পুরস্কার না দিয়ে, কাজের মানুষকে পুরস্কার দেওয়া শুরু করলো। বিজেপি সরকারের আমলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উঠে আসা মাটির মানুষ, যারা দেশ তথা সমাজের ভালোর জন্য পদক্ষেপ নিয়েছেন তাঁদের নানারকম পুরস্কার দিয়ে সন্মানিত করেছে।

এরাজ্য থেকে ‘” নামে খ্যাত ধলাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা করিমুল হককে পদ্ম পুরস্কারে ভূষিত করেছে মোদী সরকার। করিমুল হোক এমনই এক মানুষ, যিনি বিনা পারিশ্রমিকে এলাকার বাসিন্দাদের নিজের গাড়ি করে হাসপাতালে পৌঁছে দেন। ওনার এই কাজকে সন্মান জানিয়েই মোদী সরকার ওনাকে বিশেষ সন্মানে ভূষিত করেছে।

অ্যাম্বুলেন্স দাদা

তেমনই সবজী বিক্রি করে গরীবের জন্য বিনামূল্যে হাসপাতাল বানিয়ে দেওয়া সুভাষিণী মিস্ত্রিকে পদ্ম পুরস্কারে ভূষিত করেছে কেন্দ্রের মোদী সরকার। সুভাষিণী দেবী নিজের খরচে হাসপাতাল তৈরি করে গরীবদের বিনামূল্যে চিকিৎসা করান। আর সেই হাসপাতালের ডাক্তার সুভাষিণী দেবীর সন্তান। সুভাষিণী দেবীর এই কাজে মুগ্ধ হয়ে কেন্দ্রের মোদী সরকার ওনাকে পদ্ম পুরস্কারে ভূষিত করেছে।

সুভাষিণী দেবী

এরকমই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষের জন্য কাজ করা মানুষগুলোকে নানারকম পুরস্কার দিয়ে ভূষিত করেছে মোদী সরকার। দেশের বলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে অহেতুক পুরস্কার আর সন্মান না দিয়ে মাটির মানুষকে পুরস্কার দেওয়ার জন্য মোদী সরকারের প্রশংসাও হয়েছে চারিদিকে।

কিন্তু যাদের পুরস্কার দিয়ে সন্মানিত করা হয়নি, তাঁরা এবার বেজায় চটে মোদী সরকারের উপর। তাঁরা এতটাই চটে যে এবার তাঁরা সর্বসমক্ষে এসে মোদী সরকারকে ভোট না দেওয়ার আবেদন করছে। বলিউড ইন্ডাস্ট্রির কিছু ফিল্ম নির্মাতাদের মতে মোদী সরকার তাঁদের স্বাধীন ভাবে সিনেমা মুক্তি পেতে দিচ্ছেনা, অথবা সিনেমা বানাতে দিচ্ছেনা।

কিন্তু কেন্দ্রে মোদী সরকার আসার পর থেকে বলিউডের কোন সিনেমাই এখনো মুক্তি পায়নি এরকম কোন খবর নেই। কিন্তু বিবেক অগ্নিহোত্রী এর সিনেমা ‘বুদ্ধ ইন অ্যা ট্রাফিক জ্যাম” সিনেমা নিয়ে যখন গোটা দেশ উত্তাল হয়েছিল। যখন দেশের চরমপন্থী আর বামপন্থীরা ওই সিনেমা নিষিদ্ধ করার দাবি তুলেছিল, তখন এই মোদী সরকারের সমালোচনা করা সিনেমা নির্দেশক একবারো বলেনি যে, বামেরা স্বাধীন ভাবে সিনেমা মুক্তি পেতে দিচ্ছেনা।

মনে রাখবেন এরাই সেই নির্দেশক যারা বাক স্বাধীনতার নামে কেরলের বামপন্থী দ্বারা নির্মিত হিন্দু ধর্মকে অপমান করা সিনেমা ‘সেক্সি দুর্গা”র হয়ে ওকালতি করেছিল। আর এবার এরা শুধুমাত্র পুরস্কার পায়নি বলেই মোদী সরকারকে আর ভোট না দেওয়ার আবেদন শুরু করে দিয়েছে!

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.