Press "Enter" to skip to content

আবারোও কাঁদলো ফিরোজ খানের আত্মা! প্রয়াগরাজ গিয়েও নিজের দাদুর কবরস্থানে গেলেন না প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা।

গতকাল কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা প্রয়াগরাজে ছিলেন। গতকাল সারাদিন প্রয়াগরাজে ঘুরে বেড়িয়েছেন। সামনে ভোট তাই মন্দিরে মন্দিরে ঘুরেও বেড়িয়েছেন।  নিজেকে হিন্দু দেখানোর জন্য সমস্থ কাজ করেছেন। সঙ্গম যাওয়া থেকে শুরু করে হনুমান মন্দির যাওয়া সবকিছুই করেছেন প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা। কিন্তু প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা প্রয়াগরাজে থাকা নিজেদের দাদুর কবর স্থানে যাননি। অনেকে এই অপেক্ষায় ছিল যে প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা তার দাদু ফিরোজ জাহাঙ্গীর খানের(গান্ধী) কবর স্থানে গিয়ে ঘুরে আসবেন। কিন্তু প্রিয়াঙ্কা শুধুমাত্র ভোটের রাজনীতি করতে গিয়ে মন্দিরে মন্দিরে ঘুরে চলে এলেন।

প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রার দাদুর নাম ফিরোজ খান, কংগ্রেসের লোকজন, দালাল মিডিয়া ফিরোজ খানের নাম বিকৃত করে অনেক সময় ফিরোজ গান্ধী বলেও প্রচার করে। প্রয়াগরাজের এলাকা মামফটগঞ্জে ফিরোজ খানের কবরস্থান রয়েছে। প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা, রাহুল গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী এই তিনজন বহুবার ইন্দ্রিরা গান্ধী, নেহেরুকে স্মরণ করার জন্য রাজঘাটে যান। কিন্তু কখনো ফিরোজ খানকে স্মরণ করতে তার কবর স্থানে যাননি। কবরস্থানে যাওয়া তো দূর ফিরোজ খানের জন্মদিন, মৃত্যুদিনে একটা টুইট পর্যন্ত করেন না।

হতে পারে যে দিল্লী থেকে প্রয়াগরাজের কবরস্থান দূর তাই গান্ধী পরিবারের কেউ আসতে পারেন না। কিন্তু গরকাল প্রিয়াঙ্কা ভাদ্রা প্রয়াগরাজ গিয়েও ফিরোজ খানের কবরস্থানে যাননি। নিজের দাদুকে এইভাবে অবহেলা কেন এই নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়েছে। কেন। নিজের দাদুর পরিচয়কে লোকানোর চেষ্টা করে গান্ধী পরিবার, এই প্রশ্নের উত্তর অবশ্যই কংগ্রেসের দেওয়া উচিত।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.