Press "Enter" to skip to content

“মোদীর শক্তি বৃদ্ধি পেলে হিন্দুদেরও শক্তি বৃদ্ধি পাবে ,এটা হতে দেওয়া যাবে না”- মলিকার্জুন খারগে, কংগ্রেস নেতা।

স্বাধীনতার পর থেকে একটা কাজ খুব ভালোভাবেই করেছে তা হলো ধর্মনিরপেক্ষতার আড়ালে হিন্দুদের ভেঙে দেওয়া, আলাদা করে দেওয়া, দুর্বল করে দেওয়া। হিন্দুদের জাতিতে ভেঙে দিয়ে দুর্বল করাই ছিল ের মূল লক্ষ। দেশের কিছু রাজ্যকে খ্রিষ্টান বহুল বানিয়ে দিয়েছে অথচ ১৯৫০ পর্যন্ত এই রাজ্যগুলিতে খ্রিস্টানদের নামচিহ্ন ছিল না। আমলেই কাশ্মীর থেকে হিন্দুদের তাড়ানো হয়েছিল। এছাড়াও দেশের প্রত্যেক শহরে মিনি পাকিস্থান তৈরি করে দিয়ে গেছে। আসলে দশক ধরে হিন্দুদের দুর্বল করে এসেছে।

কিন্তু যদি কংগ্রেস না থাকে, নরেন্দ্র মোদীর মতো নেতা দেশের ক্ষমতায় টিকে থাকে তাহলে হিন্দুরা আবার শক্তিশালী হবে। এই বিষয়টি এখন কংগ্রেসের নেতারা নিজের মুখে স্বীকার করতে শুরু করেছে। সম্প্রতি কংগ্রেসের বরিষ্ঠ ও অভিজ্ঞ নেতা বলেছেন ” যদি মোদী শক্তিশালী হয় তাহলে হিন্দুরাও শক্তিশালী হবে, যদি মোদীর শক্তির বৃদ্ধি পায় তাহলে হিন্দুদের শক্তি পাবে যেটা হতে দেওয়া যাবে না।”

দেশে কংগ্রেসের সময়কালে ইসলামিক সংগঠন ও মিশনারি সংগঠনগুলি খুব শক্তিশালী হয়েছে। এখন যদি মোদী ক্ষমতায় টিকে থাকে তাহলে এই সংগঠনগুলি দুর্বল হয়ে যাবে এবং হিন্দুরা একত্রিত ও শক্তিশালী হবে। তবে এই দাবি আমার করছি না বরং কংগ্রেসের বড়ো নেতা মলিকার্জুন খারগে করেছে। মলিকার্জুন খারগে বলেছেন হিন্দুদের কোনোভাবেই একত্রিত হতে দেওয়া যাবে না, যেন তেন প্রকারে হিন্দুদের আলাদা করে দিতে হবে।

জানিয়ে দি, কংগ্রেস ইংরেজদের তৈরি করা একটা পার্টি যারা বরাবর হিন্দুদের একতা ভেঙে দেশে রাজ করেছে। যদিও একথা এতদিন পর্যন্ত তারা নিজ মুখে স্বীকার করতো না, কিন্তু এখন মলিকার্জুন খারগের মতো অভিজ্ঞ নেতা এই কংগ্রেসে আসল নীতি ফাঁস করে দিয়েছেন। উল্লেখ্য, মিডিয়া এই সমস্থ নেতাদের মন্তব্য নিয়ে কোনো বিরোধ প্রদর্শন করবে না কারণ দেশের অধিকাংশ মিডিয়া কংগ্রেস, বামপন্থী অথবা মিশনারি দ্বারা পরিচালিত।