in ,

কুম্ভ মেলার আগে কট্টরপন্থীদের নিয়ে চরম সতর্ক যোগী প্রশাসন! গেপ্তার করা হলো ৪ সন্দেহজনক কাশ্মীরিকে।

মাত্র কয়েকদিন পর থেকেই প্রয়াগ রাজের মহাকুম্ভ এ জমায়েত হবে কোটি কোটি হিন্দু। মহাকুম্ভের ঠিক আগেই প্রয়াগরাজের পার্শবর্তী জেলা থেকে গেপ্তার করা হয়েছে ৪ জন সন্দেহজনক কাশ্মীরি। ৪ জন কাশ্মীরি গেপ্তার হওয়ার ঘটনায় মহল আরো একবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। এমনকি এই ঘটনায় সুরক্ষাকর্মীদের কান খাড়া হয়ে গেছে। পুলিশ প্রশাসনের কাছে গেপ্তার হওয়ার পরেও এখন মুখ খুলতে নারাজ সন্দেহজনক কাশ্মীরিরা। যোগী পুলিশ ও বাকি সুরক্ষা এজেন্সি এই বিষয়টিকে হালকা নিতে রাজি নয়, তাই আরো জোরতোর দিয়ে কার্যবাহী শুরু করা হয়েছে। গোপন সূত্রে খবর পাওয়ার পর পুলিশ ঐতিহাসিক কসবা করা এলাকায় ভ্ৰমনরত অবস্থায় গেপ্তার করেছে। যে ৪ জনকে গেপ্তার করা হয়েছে তার মধ্যে ২ জন পুরুষ ও ২ জন মহিলা।

পুলিশ জানিয়েছে এই ৪ জনের আচার আচরণ খুবই সন্দেহজনক। কারণ এই ৪ জন কোনোভাবেই সঠিক উত্তর প্রকাশ করছে না। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করার সময় যে প্রশ্ন করেছে সেই সমস্থ প্রশ্নের ভুলভাল উত্তর প্রদান করেছে এই কাশ্মীর থেকে আগত ব্যাক্তির।

৪ জন ব্যাক্তির সকলেই একই ধরণের উত্তর দিয়েছেন কিন্তু তাদের উত্তরের সাথে কিছু বিষয় মিল খাচ্ছে না। কারণ তারা জানিয়েছে যে বাদাম বিক্রি করতে তারা এতদূর এসেছে কিন্তু প্ৰশ্ন হচ্ছে, বাদাম বিক্রির জন্য কোন ব্যক্তি ১০০০ কিমি দুরত্ব অতিক্রম করে আসে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, এই ৪ জন ব্যাক্তিকে যে স্মরণ দিয়েছিল তার নাম শাহকত উল্লাহ। ইনি শাহাগঞ্জ থানার পাশে আজমল মহল্লা এলাকায় বাস করে। এসপি প্রদীপ গুপ্তা জানিয়েছেন কাশ্মীরের যে ৪ জনকে গেপ্তার করা হয়েছে তাদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে এবং সেই ভিত্তিতেই তদন্ত করা হচ্ছে।

যেহেতু কুম্ভ মেলা হিন্দুদের সবথেকে বড় মেলা, এই মেলায় বহু কোটি হিন্দু একত্রিত হয়ে। তাই হিন্দুদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের একটা আঁচ পাচ্ছে হিন্দুত্ববাদীরা। অবশ্য এই মেলার সুরক্ষার জন্য ভারত সরকার ইজরায়েলের সবথেকে বেস্ট টেকনিক ব্যাবহার করতে চলেছে যেটা বিশ্বের সবথেকে উন্নত পরিষেবা দিতে সক্ষম। যোগী সরকার কোনোভাবেই হিন্দুদের জীবন নিয়ে ঝুঁকি নিতে রাজি নয়। তাই সুরক্ষা প্রণালীর সমস্থ দিক থেকে ঢেলে ঘেরাবন্দি করা হবে এই কুম্ভ মেলা।

Leave a Reply

ধর্ম নিয়ে ফেঁসে গেল কংগ্রেস ! রাহুল গান্ধীর দাদু ফিরোজ খানের কবর নিয়ে শুরু বিতর্ক।

গান্ধী পরিবারের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী! রাহুল গান্ধীকে তীব্র কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন নরেন্দ্র মোদী।