in ,

পাক সেনার ২৫ জনকে হত্যা এবং ২ জনকে আটক করলো বালোচ সংগ্রামীরা! বেলুচিস্তানকে নতুন দেশ করার জন্য সক্রিয় সংগ্রামীরা।

পাকিস্থানের আতঙ্কবাদীদের দরুন শুধুমাত্র সমস্যায় পড়ে না। ইরান,আফগানিস্তান, বালোচিস্তান পাকিস্থানের জিহাদের জন্য পীড়িত। পাকিস্থান জোর করে বেলুচিস্তানের উপর কবজা করে রেখেছে। গতকাল পাকিস্থানের অত্যাচার থেকে বিরক্ত হয়ে বালোচ স্বাধীনতা সংগ্রামীরা গোয়াদার এলাকায় পাকিস্থানের সেনার সাথে সরাসরি  সংঘর্ষে নেমেছিল। এই সংঘর্ষে বালোচ সংগ্রামীরা বড় সাফল্য পেয়েছে।

বালোচ সংগ্রামীরা পাকিস্থানের ২৭ জন সৈনিকের মধ্যে ২৫ জনকে শেষ করে দিয়েছে এবং ২ জনকে আটক করে রেখেছে। আটক হওয়া পাকিস্থানি সৈনিকের ভিডিও তৈরি করেছে বালোচ সংগ্রামীরা। ভিডিওতে পাক সৈনিক স্বীকার করেছে যে তারা বালচের মানুষজনের উপর অত্যাচার করে এবং জোর করে ট্যাক্স নেয়। ভিডিও নীচে দেওয়া হয়েছে।

বালোচ মানুষদের উপর পাক সেনা চরম অত্যাচার করে। বালোচ মহিলাদের তুলে নিয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে, বালোচ যুবকদের মারধর করা সবক্ষেত্রে পাক সেনা  বল প্রয়োগ করে। তাই বালোচরা বহুদিন থেকে পাকিস্থান ভেঙে আলাদা দেশ তৈরির দাবি জানাচ্ছে। বালোচরা ভারতীয়দের থেকে সাহায্য চেয়েছে পাকিস্থানের থেকে তাদের আলাদা করার জন্য। প্রধানমন্ত্রী মোদী লালকেল্লা থেকে বালোচদের নিয়ে আওয়াজ তুলে সেটাকে আন্তর্জাতিক স্তরে পৌঁছে দিয়েছিলেন। যারপর থেকে বালোচদের মনোবল আরো বেড়ে গেছে।

নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর থেকে বালোচরা সক্রিয় হয়ে পাকিস্থানের বিরুদ্ধে লড়াই করতে শুরু করেছে। এখন শুধু ভারতের জনগণ যদি সোশ্যাল মিডিয়া ও অন্যান্য মাধ্যমে বালোচদের মনবল বাড়িয়ে দেয় তবে পাকিস্তানের টুকরো হওয়া নিশ্চিত। কিছু ভারতীয় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বালোচদের সমর্থন জানতে শুরু করে দিয়েছে যার ফলস্বরূপ মাঝে মধ্যে ‘ফ্রী বালোচ’ ট্রেন্ডিং হতে শুরু হয়েছে।

২টি রকেট মিসাইলের জবাবে ইজরায়েল সেনা করলো ১০০ টি স্থানে বোমা বর্ষণ! কেউ চাইলো না প্রমান, কেউ করলো না বিরোধ।

আজ বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক, এই আসন গুলোর প্রার্থীর নাম ঘোষণা হতে পারে আজ