Press "Enter" to skip to content

১৮ বছর পর সাংসদে হলো এমন কাজ যার মাধ্যমে রেকর্ড তৈরি করলো মোদী সরকার।

সাধারণত দেশে সংসদের কথা উঠলেই হাঙ্গামার মতো ঘটনা সামনে চলে আসে। আর হাঙ্গামার জন্যেই বেশিরভাগ সময় সদন খবরে ছেয়ে থাকে।কিন্তু NDA এর এই সময়কালে সদনের পরিবেশ বেশ উজ্জ্বল ছিল। সাংসদের দুই সদনে হাঙ্গামা নয়, কাজের রেকর্ড তৈরি হয়েছে। লোকসভায় ১৭ টি বৈঠকে নিন্ম সদনে ২১ বিধেয়কের মঞ্জুরি প্রদান করানো হয়েছে। সরকারের তরফে লোকসভায় ২২ টি বিধেয়ক পেশ করা হয়েছিল। সদনের কার্যকাল নিদিষ্ট সময়ের থেকে ২০ ঘন্টা বেশি সময় ধরে চলেছিল। কারণ সদনের সাংসদরা বেশি সময় ধরে উপস্থিত ছিলেন। এই বছর সদনের বর্ষাকালীন সময়কাল ১০ আগস্ট বাড়ি ক্রেতাদের জন্য একটা বিধেয়ক পাশ হওয়ার পর শেষ হয়। কাজের দিক থেকে এটা সবথেকে ভালো সময়কাল ছিল। এই সময়কালে কাজের দিক থেকে এমন কিছু রেকর্ড তৈরি হয় যা মোদী সরকারের জন্য ইতিহাস বানিয়ে ফেলে। লোকসভায়।

নির্ধারিত সময়ের থেকে ১০% বেশি সময় ধরে কাজ হয়েছে অন্যদিকে রাজ্য সভায় ৬৬% বেশি সময় ধরে কাজ হয়েছে। লোকসভার অধ্যক্ষ সুমিত্রা মহানজন বলেন, লোকসভার ১৭ টি বৈঠক হয়েছে যেগুলি ১১২ ঘন্টা ধরে চলেছে। রাষ্ট্রীয় পিছড়া বর্গ আয়োগকে সাংবিধানিক মান্যতা প্রদান করা গুরুত্বপূর্ণ কানুন ছিল। এছাড়া অনুসূচিত জাতি ও অনুসূচিত জনজাতি অধিনিয়ম এ তৎকাল গ্রেপ্তারের ব্যাপারের কানুন আরেক গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ছিল।

অন্যান্য কানুনের মধ্যে বাচ্চাদের অনিবার্য শিক্ষা দান বিধেয়ক, পলাতক আর্থিক বিধেয়ক, দুর্নীতি নিধরোক সংশোধক বিধেয়ক, অপরাধী বিধি সংশোধন বিধেয়ক,বাণিজ্য আদালত, উচ্চন্যায়লয়ের বাণিজ্য খন্ড ও বাণিজ্য আবেদন বিধেয়ক, অচল সম্পত্তি আবশ্যকতা ও অধিগ্রহণ সংশোধন বিধেয়ক সামিল রয়েছে।

রাজ্যসভা সভাপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু সদনের ভালো কাজের জন্য খুশি ব্যাক্ত করেছেন। আগের বছর শীতকালীন সময়ে ৫৩% ও এই বছর বাজেট কালীন সময়ে ২৫% এর তুলনায় এই মনসুন সময়কালে ৭৪% কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ১৪ বিল পাশ করাকালীন সাংসদে হাঙ্গামাও দেখা গিয়েছে। অবিশ্বাস প্রস্তাবের মতো সময় নষ্টের কিছু বিষয় লক্ষ করা গিয়েছে কিন্তু সবথেকে উল্লেখযোগ্য হলো দুই সাংসদে হওয়া কাজ যা আগে লক্ষ করা যেত না।