সঞ্জয় ও ইন্দ্রিরা গান্ধীর মৃত্যুর ভবিষ্যতবাণী করা জ্যোতিষীচার্য এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে করলেন বড়ো গণনা।

দেশে ক্ষমতায় থাকা ৪ বছরের বেশি পূর্ণ করে ফেলেছে নারেন্দ্র মোদীর সরকার। এই সময় দেশে আর একবার লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। একদিকে যেমন মোদী সরকার দেশের মানুষের চাহিদা পূরণের জন্য দিনরাত এক করে দিয়েছে। তেমনি অন্যদিকে বিরোধী দলগুলি এক হয়ে মোদী ঝড়কে আটকানোর জন্য সমগ্র শক্তি প্রয়োগ করেছে। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন সামনে তাই দেশের মিডিয়া থেকে বড়ো বড়ো এজেন্সি সকলে নির্বাচনের সমীক্ষা বের করতে শুরু করে দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে বর্তমানে বিজেপি বিশ্বের সবথেকে বড়ো ও শক্তিশালী রাজনৈতিক পার্টিতে পরিনত হয়েছে। বর্তমানে দেশের প্রায় বেশিরভাগ রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় রয়েছে এবং দেশকে একসূত্রে বেঁধে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় রয়েছে। এখন যখন বামপন্থীরা দেশকে উত্তর ভারত দক্ষিণ ভারত বলে এবং কংগ্রেস এক সম্প্রদায়কে তোষণ করে আরেক সম্প্রদায়কে অবহেলা করে রাজনীতি করছে তখন নারেন্দ্র মোদী সবকা সাথ সবকা বিকাশের শ্লোগান দিয়ে দেশকে বিশ্বগুরু করার পথে কাজ করছেন।

এমন পরিস্থিতিতে এক বিখ্যাত জ্যোতিষী ২০১৯ নির্বাচন ও পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর চেহেরা কে হবেন এই নিয়ে ভবিষ্যতবাণী করেছে। এই জ্যোতিষী আর কেউ নয় বরং ইন্দ্রিরা গান্ধীর মৃত্যুর ভবিষ্যতবাণী করা জ্যোতিষীচার্য হরিদয়াল মিস্রা। উনি জানিয়েছে এখন মোদীর খুবই মজবুত অবস্থায় রয়েছে। লোকসভা নির্বাচনে নারেন্দ্র মোদী জিতবেন এবং এই অবস্থায় মোদীকে হারানো শুধু মুশকিল নয় একইসাথে অসম্ভব।

জ্যোতিষীচার্য জানিয়েছেন মোদীর শক্তি এখন এতটাই প্রভাবশালী যে উনাকে কোনো রাজনৈতিক ব্যাক্তি টক্কর দিতে পারবে না তাতে সে যতই শক্তিশালী হোক না কেন। জ্যোতিষীজি বলেন এখন রাহুল গান্ধীর সময় ঠিক নয়, রাহুলের এখন স্থির হয়ে দূরে সরে যাওয়া উচিত নাহলে মোদী প্রভাব রাহুলকে বড়ো ধাক্কা দিতে পারে। তবে জ্যোতিষীচার্য জানিয়েছেন বিজেপির আসন সংখ্যায় সামান্য কমতি হবে।

হরিদয়াল মিস্রা বলেন নারেন্দ্র মোদির স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সমস্যা দেখা যেতে পারে। আপনাদের জানিয়ে দি একমাস আগে বেজান দারুয়াল প্রধানমন্ত্রী নারেন্দ্র মোদীর সম্পর্কে ভবিষ্যতবাণী করে ২০১৯ এ পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হবে বলে জানিয়েছিলেন। শুধু এই নয় যোগগুরু রাম ভদ্রাচার্যও ২০১৯ এ নারেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হবে বলে ভবিষ্যত বাণী করে বিরোধীদের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছিলেন।

you're currently offline

Open

Close