Press "Enter" to skip to content

চিটফান্ডে সর্বস্ব লুঠ, তারপর আবার বেকার! শেষে মানসিক অবসাদে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা উচ্চশিক্ষিত যুবকের

ইংরাজিতে এমএ করার পর বিএড সম্পূর্ণ করেছিলেন সোনারপুরের বাসিন্দা অতনু মিস্ত্রি। কিন্তু এত শিক্ষিত হওয়ার পরে মিলেছিল বেসরকারি সংস্থায় ঘর মোছার চাকরি! আর সেই অবসাদেই শেষে নিজের ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে পরে অতনু মিস্ত্রি। শেষ করে দেয় নিজের জীবন। উচ্চ শিক্ষিত হয়ে শিক্ষক হওয়ার আশা ছিল অতনুর। কিন্তু এরাজ্যে থেকে সেটা সম্ভব না, আর সেই জন্যই বেকারত্বের জ্বালা ঘোচাতে শেষে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে হয়েছিল অতনুকে।

তারপর বালির বাসিন্দা ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ভবানীশঙ্কর পাল আর যাদবপুরের বাসিন্দা প্রিন্স ভট্টাচার্য ও বেকারত্বের জ্বালায় জীবনটাকে শেষ করে দিয়েছিল। এবার তাঁদের অনুসরণ করে নিজের জীবনের সাথে সেটাই করল উচ্চ শিক্ষিত বেকার  সিউড়ির ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া উৎপল ঘোষ।

স্থানীয় সূত্র অনুযায়ী চিটফান্ডে সর্বস্ব লুট হওয়ার পরে অনেক কষ্টে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছিল উৎপল। বাবাও ছিলেন বেকার। সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হত ওনাকে। উচ্চশিক্ষার পরেও দীর্ঘদিন ধরে চাকরীর চেষ্টা করেও চাকরি পাচ্ছিল না সিউড়ির সমন্বয়পল্লীর বাসিন্দা উৎপল ঘোষ।

বছর তিনেক আগে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে উৎপল। এরপর বিভিন্ন যায়গায় চাকরীর পরীক্ষা দিলেও মিলছিল না চাকরি। চাকরি না পাওয়ায় অনেকদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিল উৎপল। শেষে জীবনের থেকে হার মেনে অতনুর মতই নিজের জীবনকে শেষ করার সিদ্ধান্ত নিলো উৎপল। শনিবার সকালে ঘর থেকে উদ্ধার করা হয় তাঁর নিথর দেহ।

একদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বলেছন উনি বছর গেলে কোটি কোটি চাকরি দিচ্ছেন। কিন্তু খোঁজ নিলে দেখা যাচ্ছে উনি চাকরি বলতে সিভিক ভলেন্টিয়ার, সিভক টিচার ছাড়া আর কিছুই দিচ্ছেন না। উচ্চশিক্ষিত হয়ে সিভিক এর কাজ কে করবে?

আরেকদিকে চাকরীর আশায় ঝড় বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ১৬ দিন ধরে অনশনে বসে আছে এসএসসি উত্তীর্ণ চাকরীর প্রার্থীরা। কিন্তু মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর তাতে কোন হুঁশ নেই। উনি উন্নয়নের বুলি আওড়েই যাচ্ছেন, আর রাজ্যে বেকারের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

এরকম চলতে থাকলে আগামী দিনে আরও প্রিন্স, অতনু, ভবানিশঙ্কর আর উৎপল এর দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় ঘরে উদ্ধার হবে। আর উনি ক্লাব, সিভিক এবং সিভিক টিচারদের চাকরি আর টাকা দিতে ব্যস্ত থাকবেন!

 

Be First to Comment

Leave a Reply