Press "Enter" to skip to content

মুসলিম উৎসব মহরমকে ব্যান করার দাবি! প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি হিন্দু সেনার।

এবার দেশে উৎসবকে ব্যান করার দাবি তুলেছে পরম রাষ্ট্রবাদী সংগঠন বলে পরিচিত । হিন্দু সেনা প্রধানমন্ত্রীকে একটা চিঠি পাঠিয়েছে যেখনে মহরমকে পুরোপুরি ব্যান করার দাবি তোলা হয়েছে। হিন্দু সেনার দাবি, মহরম একটা বর্বর কৃত। হিন্দু সেনার প্রমুখ বলেন, মহরমের উপর ব্যান লাগানো হোক। দেশজুড়ে মহরমের নামে এমন কৃত্য করা হয় যাতে রাস্তায় ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি হয়। এই রকম পরিবেশ দেশের জন্য ঠিক নয়। বলেন মহরমে ছোটো ছোটো বাচ্চাদের সামিল করা হয় যেখানে রক্তর খেলা পর্যন্ত হয়। এতে হিংসা ছড়ায় এবং এটা একটা বর্বর কৃত্য যার জন্য করা উচিত বলে দাবি তোলেন বিষ্ণু গুপ্তা।

বিষ্ণু গুপ্তা বলেন মহরম একটা বর্বর বিদেশী কৃত্য যার উপর অবিলম্বে ব্যান লাগানো উচিত।
এতদিন পর্যন্ত হিন্দু ধর্মের নান উৎসব বন্ধ করার জন্য দাবি জানতো হিন্দু বিরোধীরা। কখনো ভগবান শিবের মাথায় জল ঢালার বিরোধ, কখনো দীপাবলিতে বাজি ফাটানোর বিরোধ আবার কখনো হোলি খেলার বিরুদ্ধে প্রায় মুখ খুলতে দেখা যেত তথাকথিত বুদ্ধিজীবী ও হিন্দুবিরোধীদের।

যদিও এই বুদ্ধিজীবী সমাজ কখনোই অন্য ধর্মের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে পারেনি। সম্প্রতি এক বুদ্ধিজীবী মুম্বাই আদালতে গিয়ে হিন্দু ধর্মের বিরুদ্ধে পিটিশন দায়ের করতে গিয়ে ধমকও খেয়েছে। কিন্তু এবার মহরমের উপর ব্যান লাগানোর দাবি তুললো পরম রাষ্ট্রবাদী সংগঠন হিন্দু সেনা।

মহরমের নামে দেশে ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি করা হয় বলে দাবি তোলে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি পাঠালো হিন্দু সেনা। তাদের দাবি যেভাবেই হোক এই বিদেশী বর্বর প্রথাকে ভারতে বন্ধ করা হোক, কারণ এটা ভারতের সংস্কৃতির অন্তর্গত নয়।