Press "Enter" to skip to content

১৩ বছরের হিন্দু মেয়ে পূঁজাকে অপহরণ করে বানিয়ে দেওয়া হলো মুসলিম!

পাকিস্তান ও বাংলাদেশ এখন হিন্দুদের জন্য নরকে পরিণত হয়েছে। আরো এক হিন্দু মাতা পিতার মেয়েকে জোরপূর্বক অপহরণ করা হলো। মা বাবা কষ্ট করে মেয়েকে বড়ো করেছিল কিন্তু জেহাদীরা হিন্দু কন্যাকে অপহরণ করলো। শুধু অপহরণ নয়, জোর করে এক মুসলিম ব্যাক্তির সাথে বিয়েও দিয়ে দেওয়া হয়েছে। হিন্দু কন্যাকে ভয় দেখিয়ে, ধমক দিয়ে ইসলাম কবুল করানো হয়েছে। হিন্দু কন্যাকে জিহাদের শিকার বানিয়ে মুসলিম বানিয়ে দেওয়া হলো। এবার জিহাদিদের শিকার হয়েছে ১৩ বছরের এক নিষ্পাপ কন্যা যার নাম পূঁজা। জন্মের পর মাতা পিতা মেয়ের নাম পূঁজা রেখেছিল কিন্তু এখন তার নাম পরিবর্তন করে ইসলামিক নাম রেখে দেওয়া হয়েছে।

কিছুদিন আগেই পূঁজা সুতাহার নামের এক হিন্দু বালিকাকে পাকিস্তানের হায়দ্রাবাদ জেলার বাকসুর গ্রাম থেকে অপহরণ হয়েছিল। স্থানীয় জেহাদীরা পূঁজার অপহরণ করেছিল। পূঁজা বাড়ির বাইরে খেলা করছিল সেই সময় জেহাদীরা পূঁজাকে তুলে নিয়ে গেছিল। আর এখন খবর আসছে যে পূঁজাকে জোর করে এক মুসলিমের সাথে নিকাহ করিয়ে দেওয়া হয়েছে। পূঁজাকে মুসলিম বানিয়ে দেয়ার হয়েছে। মুসলিম করে দেওয়ার পর পূঁজার একটা ছবিও সামনে চলে এসেছে।

মুসলিম বহুল এলাকায় এইভাবে আরো এক হিন্দু মেয়ের জীবন নষ্ট করে দেওয়া হলো। পাকিস্তান ও বাংলাদেশে হিন্দুদের জীবন কিভাবে নরকে পরিণত হয়েছে তার আরো এক প্রমাণ হাতে নাতে পাওয়া গেল। জানিয়ে দি, কট্টরপন্থীরা পাকিস্তান ও বাংলাদেশকে সম্পূর্ণভাবে হিন্দু শুন্য না করা পর্যন্ত এই ধরণের কার্য করে জিহাদ চালিয়ে যাবে। অন্যদিকে সেখানের সরকার হিন্দুদের সুরক্ষার আশ্বাস দিয়ে পিঠপিছু জেহাদীদের সমর্থন চালিয়ে যায়।

you're currently offline