Press "Enter" to skip to content

রাজনৈতিক হিংসা রুপ নিল সাম্প্রদায়িক হিংসার! হিন্দুদের উপর আক্রমণ ডায়মন্ড হারবারের নহাজারী এলাকায়।

এক সময় কাশ্মীরে যা যা ঘটতে দেখা যেত, পশ্চিমবঙ্গে এখন ঠিক তাই তাই ঘটতে দেখা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সম্প্রতি এক ইন্টারভিউতে বলেছিলেন যে পশ্চিমবঙ্গ কাশ্মীর হওয়ার দিকে এগোচ্ছে। এখন সেই কথা পদে পদে সত্য বলেই মনে হচ্ছে। কারণ প্রথমে রাজনৈতিক অশান্তি এবং তারপর সেই অশান্তি সাম্প্রদায়িক রূপ নিতে শুরু হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে। এক চাঞ্চল্যকর খবর পশ্চিমবঙ্গের ডায়মন্ড হারবারের নহাজারী এলাকা থেকে সামনের আসছে। যেখানে হিন্দুদের উপর আক্রমণ করার খবর উঠে এসেছে।

টাইমস নাও এর খবর অনুযায়ী, তৃনমূল কংগ্রেসের কিছু নেতা এলাকায় হিংসা শুরু করে দিয়েছে। প্রথমদিকে হিংসা শুধুমাত্র রাজনৈতিক ছিল কিন্তু পরে বিজেপি হোক বা তৃণমূল সকল হিন্দুদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে জিহাদি বাহিনী। পশ্চিমবঙ্গের মিডিয়া ঘটনা নিয়ে কোনো খবর পরিবেশন না করলেও টাইমস নাও এর গ্রাউন্ড রিপোর্টিংয়ে জন্য খবর সামনে এসেছে।

টাইমস নাও এর রিপোর্টার তমাল গ্রাউন্ড রিপোর্টিং করে জানিয়েছেন, ১১ তারিখ রাতে থেকে ঘটনার সূত্রপাত হয়। হিন্দুদের বাড়ি ঘর, দোকান জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনা এতটাই ভয়াবহ যে পুলিশ পর্যন্ত এলাকায় প্রবেশ করতে পারেনি। পরে পুলিশ এলাকায় প্রবেশ করলে পুলিশের উপরেও আক্রমন করা হয়। এক তৃণমূল নেত্রীর স্বামী তার ২০০ জন সাথীকে নিয়ে হিন্দুদের উপর এই আক্রমন চালিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খবর অনুযায়ী, নহাজারী অঞ্চলের প্রাক্তন প্রধান মাবিয়া বিবির স্বামী আজান শেখ তার ২০০ জন কট্টরপন্থী বাহিনীকে সাথে নিয়ে হিন্দুদের ঘর বাড়ি, দোকান জ্বালিয়ে দেয়। ধীরে ধীরে এই হিংসা বোয়াখালী এলাকার দিকে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানেও বোমা, পিস্তল, তরোয়াল নিয়ে ঢুকে পড়ে কট্টরপন্থীরা। অনেকে হিন্দু পরিবার তাদের জীবন ও মহিলাদের সন্মান বাঁচাতে পলায়ন করে। আপাতত পুলিশ প্রশাসন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে বলে খবর।