বড় খবর – জঙ্গলমহলে গেরুয়া ঝড়! তৃণমূলকে ছুঁড়ে ফেলে বিজেপিতে যোগদান করলো শতাধিক কার্যকর্তা।

পশ্চিমবাংলায় এখন দলবদল হল নৃত্য দিনের ঘটনা। সেই দল বদলের খেলায় বরাবরই বাজিমাত করে বিজেপি। এবারও তাই হল, এবার দল বদলের খেলায় বিজেপি টেক্কা দিল শাসক দল তৃনমূল কংগ্রেস কে। এবার বিজেপিতে যোগদান করলেন গড়বেতা ৩ নম্বর ব্লকের প্রায় কয়েক’শ তৃণমূল কর্মী সমর্থক। বিজেপির জেলা সভাপতি আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে সেই সমস্ত কর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন। কিছু দিন আগেই পূজো পেরোলো তার গন্ধ এখানো রয়েছে আকাশে বাতাসে। এইরকম সময় প্রায় কয়েক’শ তৃনমূল কর্মী তৃনমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় তৃণমূল জেলা নেতৃত্বের কপালে চিন্তার ভাঁজ এবং বুকে সংগঠন ভেঙে যাওয়ার ভয় ঢুকে গিয়েছে।

শমিত কুমার দাস যিনি হলেন জেলা সভাপতি তিনি এইদিন একটি সাংবাদিক বৈঠক করে সবাই কে এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানান। তিনি জানিয়েছেন যে, গড়বেতা ৩ নম্বর ব্লকের কাদরা ১৫১ নম্বর বুথে ব্লক তৃনমূল নেতৃত্বের সাথে স্থানীয় তৃনমূল নেতৃত্বের প্রায় দিনই নানাকারনে ঝগড়া হয়। কিন্তু এই কয়দিন গণ্ডগোলের মাত্রা খুব বেড়ে যায়, ফলে তৃণমূল ছেড়ে শতাধিক তৃণমূল কর্মী সমর্থক নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন এলাকার বুথ সভাপতি প্রবীর রায়।

তাই তাদের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে কাল একটি অনুষ্ঠান করা হয় সেই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন শিবু পানিগ্রাহী, রাজিব কুণ্ডু এবং বিজেপি জেলা নেতা সৌমেন তেওয়ারি সহ প্রমূখ ব্যাক্তিত্ব। তাদের সামনেই তৃনমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে আসা কর্মী সমর্থকদের হাতে গেরুয়া পতাকা তুলে দেওয়া হয়।এইভাবে তৃনমূল ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করায় বেশ চাপে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার তৃনমূল নেতৃত্ব, তাই তারা এই ব্যাপারে মুখ খুলতে চাই নি।

অপর দিকে বিজেপির জেলা সভাপতি জানান যে, এটা হবারই ছিল। কারন তৃনমূলের গুণ্ডামির জেরে এখন তাদের দলের কর্মী সমর্থকরাই অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন ফলে তারা স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারছেন না। তাই সাধারণ মানুষের হয়ে কাজ করার জন্য একমাত্র দল বিজেপি তে এখন সবাই যোগদান করছেন। এর ফলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় যে বিজেপির শক্তি বেশ মজবুত হল সেটা জেলা সভাপতির কথাতেই স্পষ্ট।
#অগ্নিপুত্র

you're currently offline

Open

Close