Press "Enter" to skip to content

দিল্লীতে ৫৪ টি সরকারি জমির উপর মসজিদ-কবরস্থান নির্মান করে অবৈধ কব্জা! উপরাজ্যপালকে পাঠানো হলো তালিকা।

পশ্চিম দিল্লীর বিজেপি সাংসদ প্রবেশ বর্মা, ৫৪ টি এমন সরকারি জমির রিপোর্ট উপরাজ্যপালের কাছে পেশ করেছেন যেখানে অবৈধভাবে মসজিদ বা কবরস্থান তৈরি করা হয়েছে। দিল্লীতে ল্যান্ড জিহাদের মামলা ব্যাপকস্তরে শুরু হয়েছে। যদিও দু একজন রাজনীতিবিদ ছাড়া কেউ এই বিষয়ে বলতে রাজি নয়। কারণ ল্যান্ড জিহাদের নিয়ে মুখ খুললে একটা বড়ো ভোটব্যাঙ্ক হাত থেকে খসে যেতে পারে। প্রবেশ বর্মা জমি কব্জা করার মামলা তুলে ধরায় উনাকে লাগাতর হুমকি দেওয়া হচ্ছে। ফোন কল ও SMS এর মাধ্যমে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে সাংসদ প্রবেশ বর্মা জানিয়েছেন।

জুলাই ১১, ২০১৯ এ প্রবেশ বর্মা দিল্লীর উপ রাজ্যপালের সাথে দেখা করেছেন এবং ল্যান্ড জিহাদের বিষয়টি তুলে ধরেছেন। রাজধানী দিল্লীর ৫৪ টি অবৈধ নির্মাণের কথা উনি উপরাজ্যপাল অনিল বেজলকে জানিয়েছেন। দিল্লীর উপরাজ্যপাল জানিয়েছেন ওই স্থানগুলির উপর তদন্ত করা হবে। যদি তদন্তের পর দাবি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে অবৈধ কব্জা হাঁটানো হবে। জানিয়ে দি, পুরো দেশ জুড়ে ল্যান্ড জিহাদের মামলা চলছে কিন্ত হাতে গোনা কিছু নেতা মন্ত্রী এই ঘটনার বিরোধ করেছনে। যার মধ্যে একজন প্রবেশ বর্মা যিনি রাজধানী দিল্লীতে হওয়া ল্যান্ড জিহাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। দিল্লির NW চক থেকে শুরু করে সেক্টর-২১, লক্ষীরাম চক পর্যন্ত ৫৪ টি স্থান ও সেখানে কি নির্মাণ করা হয়েছে তার তালিকা উপরাজ্যপালকে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রবেশ বর্মা রাজ্যপালকে একটা চিঠি লিখেছেন যেখানে উনি জানিয়েছেন বিগত ২০ বছরে সরকারি জমির উপর কিভাবে অবৈধ নির্মাণ করা হয়েছে। সরকারি জমির উপর অবৈধভাব মসজিদ বা কবরস্থান নির্মাণ করে দখল করে নেওয়া হয়েছে। প্রবেশ বর্মা রাজ্যপালের কাছে অনুরোধ করেছেন জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের সদস্যদের নিয়ে একটা সমিতি গঠন করে মামলার তদন্ত করার জন্য। সরকারি জমি ও পাবলিক স্থানে ধীরে ধীরে অবৈধ কব্জা করে মসজিদ বা কবরস্থান নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে যা দিল্লীর ভবিষ্যতের জন্য ভয়ঙ্কর বলে মত প্রকাশ করেছেন প্রবেশ সিং বর্মা।