Press "Enter" to skip to content

মমতার বিরুদ্ধে মন্তব্য করে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করলেন এই মুসলিম ধর্মগুরু।

এবার মুসলিম ধর্মগুরু বরকতি যিনি টিপু সুলতান মসজিদের শাহী ই হুজুর তিনি করলেন এক বিস্ফারণ মন্তব্য। বললেন যে নাগরিকপঞ্জ যদি পুরো দেশজুড়ে করা হয় তাহলে সবচেয়ে বেশি লাভবান হবেন দেশের মুসলিম সম্প্রদায়। সেই সাথে তিনি এটাও বললেন যে তৃনমূল তাকে ঘরবন্দি করে রেখেছে। তৃনমূলের পক্ষ থেকে তার উপর ২৪ ঘণ্টা নজর রাখা হচ্ছে। কিছু দিন আগে তিনি একটি সংবাদপত্রকে সাক্ষাতকার দেন সেখানে তিনি জানান যে, আমি এখন তোষণনীতি ছেড়ে সত্যির দিকে কথা বলি। তাই তৃনমূল কংগ্রেস আমাকে ভয় পেয়েছে। আমাকে গ্রেফতার করার কথা বলছে। তাই আমি মমতাকে চ্যালেঞ্জ করাছি যে আমাকে গ্রেফতার করুন, মারুন। আমাকে যা ইচ্ছা করুন কিন্তু আমি সত্য কথা বলবো। তাই এখন আমি তৃনমূলের কাছে বিষে পরিনত হয়েছি।

লোকে বিজেপিকে দোষ দেয় যে তারা নাকি গুন্ডাগিরি করে কিন্তু আমার বাড়িতে গুলি চালিয়ে কে গুন্ডাগিরির পরিচয় দিচ্ছে সেই প্রশ্ন তিনি করেন মমতা ব্যানার্জি কে। তিনি আরও জানান যে, আমি সবার সামনে দাড়িয়ে বলছি টাকা থাকলে সব কিছু করা যায়, এই রাজ্যের মানুষের কাছে আমি মমতার ভাবমূর্তি তুলে ধরেছিলাম। মমতাকে মুখ্যমন্ত্রী করার রাস্তা আমি পরিষ্কার করে দিয়েছিলাম রাজ্যে। তাকে জনসমক্ষে সৎ মানুষ হিসাবে তুলে ধরেছিলাম।

কিন্তু তিনি বলেন যে তিনি ভুল করেছেন মমতা মুসলিমদের জন্য কিছুই করে নি। এমনকি তিনি বিজেপিকে সমর্থন করে বলেন যে, তারা ক্ষমতায় এলে এই রাজ্যে যে নাগরিকপুঞ তৈরী করার কথা বলেছে সেটা করলে সবচেয়ে বেশি লাভবান হবেন এই রাজ্যের মানুষ। অনেক বহিরাগত মুসলিম এই রাজ্যে অবৈধভাবে বসবাস করে তারা রাজ্যের সমস্তপ্রকার সুবিধা ভোগ করছে।

জমি, জায়গা এমনকি চাকরিতেও তারা ভাগ বসাচ্ছে। তাই NRC করে তাদের বের করে দেওয়া উচিৎ বলে তিনি মনে করেন। অপরদিকে বরকতি আক্ষেপের সুরে বলেন যে, তৃনমূলে থেকে আমার কিছুই লাভ হয় নি বরং বদনাম হয়েছে অনেক। তিনি আরও বলেন যে যদি বিজেপি পার্টির তরফে আমাকে ডাকা হয় তাহলে আমি তাদের দলে যেতে রাজি আছি।
#অগ্নিপুত্র