Press "Enter" to skip to content

ভারতীয় সেনার রুদ্র রুপ দেখে ভয় পেয়ে ইমরান খান বলল, ‘কোন জেহাদি যেন ভারতে অনুপ্রবেশ করতে না যায়”

পরিস্থিতি দেখে এখন এটাই বোঝা যাচ্ছে যে, বারবার ভারতকে যুদ্ধ এবং পরমাণু হামলার হুমকি দেওয়া পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এখন ভারতের ভয়ে কাঁপছে। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বুধবার পাকিস্তানিদের সতর্কবার্তা জারি করে জানান, তাঁরা যেন জেহাদ এর জন্য কাশ্মীরে না যায়। ইমরান খান বলেন, ‘যদি কোন পাকিস্তানি জেহাদের জন্য ভারত যায়, তাহলে সেটা কাশ্মীরিদের জন্য অন্যায় করা প্রথম পাকিস্তানি ব্যাক্তি হবে। তাঁকে কাশ্মীরিদের শত্রু বলা হবে।”

ইমরান খান অভিযোগ করে বলেন, ভারত কাশ্মীরিদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য শুধু একটি মাত্র ছুতো চায়। পাকিস্তান – আফগানিস্তান সীমান্তে তোরখাম টার্মিনালের উদ্বোধনের পর পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এই কথা বলেন। উনি আরও একবার ভারতের দিকে আঙুল তুলে বলেন, ভারত কাশ্মীর থেকে মানুষের নজর হটানোর জন্য বারবার আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ তুলছে। আর তাঁরা মিথ্যা অভিযোগের এই অভিযান লাগাতার চালিয়ে যাচ্ছে।

ইমরান খানের আমেরিকা সফরের আগে পাকিস্তানে জেহাদিদের উৎসাহিত করা এই বয়ান সামনে এসেছে। ইমরান খান নিজের আমেরিকার যাত্রায় সংযুক্ত রাষ্ট্রের মহসভাকে সম্বোধিত করবে, আর আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে সাক্ষাৎ করবেন। ইমরান খান বলেন, আগামী সপ্তাহে সংযুক্ত রাষ্ট্রের মহাসভায় আমি কাশ্মীর ইস্যু এত তুখর ভাবে তুলে ধরব যেটা আগে কেউ কোনদিনও করেনি।

রেডিও পাকিস্তান অনুযায়ী, ইমরান খান বলেছেন যে, বলেছেন যে, যতদিন না ভারত কাশ্মীর থেকে কারফিউ তুলে নিচ্ছে, ততদিন তিনি আর ভারতের সাথে কোন কথা বলেবেন না। জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর থেকেই পাকিস্তান এই ইস্যু বারবার আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলতে চাইছে। কিন্তু যতবারই তাঁরা এই ইস্যু আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলেছে, ততবারই তাঁরা সপাটে চড় খেয়েছে।

এমনকি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে একের পর এক মিথ্যে কথা বলে গেছেন। উনি বলেছেন, কাশ্মীর মানুষের উপর অকথ্য অত্যাচার করা হচ্ছে। কাশ্মীর উপত্যকাকে জেলে পরিণত করা হয়েছে। এরপর ইমরান খান এও বলেন যে, কাশ্মীরে কারফিউ জারি করা হয়েছে, এর ফলে সাধারণ কাশ্মীরি নাগরিকদের বহু সমস্যার সন্মুখিন হতে হচ্ছে।

পাক প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানের জেহাদিদের কাশ্মীরে যেতে বারণ করার প্রধান কারণ হল ভারতীয় সেনার রুদ্র রুপ। বিগত কয়েক মাস ধরে পাকিস্তানের জেহাদি আর পাকিস্তানের ব্যাট কম্যান্ডোরা বারবার সীমান্ত পেরিয়ে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা করছে। কিন্তু ভারতীয় সেনার জওয়ানেরা পাকিস্তানের এই ষড়যন্ত্র বারবার ব্যার্থ করছে। এমনকি অনুপ্রবেশ করার সময় ভারতের সেনার গুলিতে ব্যাট আর পাক জিহাদিরা খতমও হচ্ছে। এই ভয়েই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জেহাদিদের কাশ্মীরে যেতে বারণ করলেন।

 

you're currently offline