Press "Enter" to skip to content

আর্থিক সাহায্যের জন্য ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে বিদেশে পৌঁছালেন পাক প্রধানমন্ত্রী

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ত্রাণ প্যাকেজের শর্তে চর্চা করতে রবিবার দুবাইতে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল এর প্রধান ক্রিস্ট্রিন লাগার্ড এর সাথে সাক্ষাৎ করছেন। ইমরান ওয়ার্ল্ড গভারমেন্ট সামিট এর সপ্তম সংস্করণে অংশ নেওয়ার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহী এর একদিনের সফরে গেছেন।

পাকিস্তানের সূচনা মন্ত্রী ফাহাদ চৌধুরী দ্য ডন পত্রিকা কে জানায়, ইমরান সন্মেলনের পরে দুবাইতে ক্রিস্টিন লাগার্ডের সাথে দেখা করবেন। পত্রিকার রিপোর্টে এক বরিষ্ঠ আধিকারিকের সুত্র থেকে বলা হয়েছে যে, অনেকবার আবেদন করার পর আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল পাকিস্তানের প্রতি একটু সূর নরম করেছে।

Christine Lagarde

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল পাকিস্তানের অর্থব্যাবস্থাকে তুলে ধরার জন্য কিছু শর্তে পদক্ষেপ নেবে বলে জানিয়েছে। তাঁরা চায় যে পাকিস্তান আগামী তিন চার বছরে ১৬০০-২০০০ বিলিয়ন ডলারের সমন্বয় করে। এই কতাবার্তায় পাকিস্তানের খরচ নিয়েও সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, কিছুদিন আগে পাকিস্তান হজ সাবসিডি খতম করার সিদ্ধান নিয়েছে। এরফলে পাক সরকারের ৪৫০ কোটি টাকার সাশ্রয় হবে। পাকিস্তানের মন্ত্রী নুরুল হোক কাদরি জানান, হজ সাবসিডি খতম করার সিদ্ধান্ত কিছুদিন আগেই ইসলামাবাদে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে চলা মন্ত্রিমন্ডল এর বৈঠকে নেওয়া হয়। তবে সেই বৈঠকে ইসলামে সাবসিডি যুক্ত হজের অনুমতি দেয় এই কথা নিয়ে চরম বাগবিতণ্ডা ও হয়েছিল।

প্রাক্তন পাক সরকার হজ যাত্রীদের জন্য ৪২ হাজার টাকার সাবসিডি দিত, আর তারফলে রাজকোষে ৪৫০ কোটি টাকার অতিরিক্ত বোঝা চেপে যেত। দেশের এখন আর্থিক অবস্থা চরম খারাপ। বেশ কিছু রিপোর্টে আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই পাকিস্তান যে সম্পূর্ণ দেউলিয়া হতে চলেছে সেটা বলা হয়েছে। আর সেই জন্যই পাক সরকার হজ সাবসিডি বন্ধ করে বছরে ৪৫০ কোটি টাকা বাঁচানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.