Press "Enter" to skip to content

আশ্চর্যজনক বিকাশ! মোদীর হাত ধরে প্রতি বছর ১৭ টি করে দেশকে অতিক্রম করছে ভারত।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কার্যকালে ের রূপ সম্পূর্নভাবে বদলে যেতে শুরু করেছে। বিশ্বে একটা মহাশক্তিরূপে উঠে আসতে শুরু করেছে। একটা বিষয় সকলে চোখে নিশ্চয় পড়েছে যে, পুরো বিশ্ব মোদীকে বড়ো বড়ো আওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করছে। কিন্তু এর কারণ কি! কারণ একটাই, মোদীর কার্যকালে খুব দ্রুতগতিতে বিকাশ করছে এটা পুরো বিশ্বের নজর কেড়েছে। আজ ের বিকাশের আরো একটা বড়ো খবর সামনে এসেছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী “ইজ অফ ডুইং বিজনেস” এ ১০০ তম স্থান থেকে ৭৭ তম স্থানে উঠে এসেছে। খুব দ্রুতগতিতে এই দিশায় এগিয়ে চলেছে। প্রথমত আপনাদের জানিয়ে দি, ২০১৪ তে যখন মনমোহন সিং প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে সরেছিলেন তখন “ইস অফ ডুইং বিজনেস” এ ১৪২ তম রাঙ্ক এ ছিল।

সেই সময় ভারতে বিজনেস করা খুবই কঠিন কাজ ছিল, মোদী ক্ষমতায় এসে মাত্র ৩ বছরে ২০১৭ সালে ভারতের স্থান ১৪২ থেকে থেকে ১০০ তে উঠে এসেছিল। আর এখন অর্থাৎ ২০১৮ তে ভারত ৭৭ তম স্থানে উঠে এসেছে। মোদী মাত্র ৪ বছরে ভারতকে ১৪২ স্থান থেকে তুলে ৭৭ তম স্থানে করে দিয়েছে। অর্থাৎ মাত্র ৪ বছরে ভারত ৬৫ টি দেশকে অতিক্রম করে দিয়েছে। হিসেব অনুযায়ী ভারত প্রতি বছর ১৭ দেশকে অতিক্রম করছে।

, ইজ অফ ডুইং বিজনেস

এইভাবে চলছে থাকলে ভারত “ইস অফ ডুইং বিজনেসে” চীনকেও ছাপিয়ে যাবে। কংগ্রেস মনমোহন সিংকে একজন বড়ো অর্থশাস্ত্রী বলে দাবি করে একই জায়গায় নরেন্দ্র মোদীকে চা বিক্রেতা বলে দাবি করে। কিন্তু কথিত অর্থশাস্ত্রী ইজ অফ ডুইং বিজনেসে ভারতকে তার সময়কালে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি বরং ভারতের অবস্থা আরো দুর্বল করে দিয়েছিলেন।

অন্যদিকে চাওয়ালা প্রধানমন্ত্রী ভারতকে লাগাতার উপরের স্থানে নিয়ে যাচ্ছেন। ইজ অফ ডুইং বিজনেসে ভারতের স্থান আরো ওপরে আসায় দেশে নিবেশ বাড়বে ফলে রোজকার বৃদ্ধি পাবে।