Press "Enter" to skip to content

বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী লড়াকু বিমান কিনবে মোদী সরকার! একটা বিমান পুরো পাকিস্থানের সর্বনাশ করার জন্য হবে যথেষ্ট।

বিগত বহু বছর ধরে(মনমোহন সিং এর আমল থেকে) রাজনৈতিক কারণে ভারত নতুন কোনো লড়াকু বিমান কিনতে সক্ষম হয়নি। একমাত্র রাফেলের চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে কিন্তু দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির জন্য রাফেলের চুক্তিতেও বহু সময় চলে গেছে। যার ফলস্বরূপ আজও রাফেল ভারতে আসতে পারেনি। ভারতের এয়ার ফাইটার জেটগুলি পুরানো হয়ে গেছে। এই কারণে এই জেটগুলির দুর্ঘটনাগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে।

বিগত মাসের মধ্যে দেশে এমন অনেকগুলি বিমান ক্র্যাশ হওয়ার ঘটনা সামনে এসেছে। এমনকি পাকিস্থানের f-16 কে তাড়া করতে গিয়েও আমাদের MIG-21 ক্র্যাশ করেছিল যাতে আমাদের পাইলট পাকিস্থানের কব্জায় চলে গেছিল। পরে অবশ্য পাকিস্থানের পাইলটকে ফেরত দিতে বাধ্য হয়।

এই সমস্থকিছুর উপর লক্ষ করে ভারত এবার বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী বিমান কেনার উপর বিবেচনা করছে। আমেরিকায় তৈরি F-35 কে কেনার উপর ভারতের বায়ু সেনা এবং ভারতের সরকার বিবেচনা শুরু করেছে। ভারতীয় বায়ু সেনা নিজেরদের ফোর্সে এই  বিমানকে সামিল করার জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। এই বিমান তৈরির কোম্পানি লকহ্যান্ড মার্টিনকে বিমানের সমস্ত বিবরণ পাঠানোর অনুরোধ করা হয়েছে।

আমেরিকার সেনাতে এই বিমান সামিল রয়েছে। আমেরিকার পর ইজরায়েল একমাত্র দেশ যাদের সেনা বাহিনীতে এক সিট সম্পন্ন এই বিমান রয়েছে। জানিয়ে দি, বায়ু সেনার দক্ষতার দিক থেকে ভারতের সেনা বাহিনী ১ নাম্বারে রয়েছে কিন্তু টেকনোলজির অভাবের জন্য ভারতকে অনেকে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এবার এই সমস্যা থেকে দেশের বায়ুসেনাকে মুক্তি দেওয়ার জন্য ভারত সরকার যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিতে চলেছে। এর জন্য সরকার অনেক আগে থেকেই বিচার করেছিল বলে সূত্রের খবর। দেশের সেনাকে টেকনোলজির দিক থেকে শক্তিশালী করার উদ্যেশে ই সরকার বাজেটে দেশকে সুরক্ষা খাতে বহু টাকা বেশি বরাদ্দ করেছে।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.