Press "Enter" to skip to content

দীপাবলির মরসুমে অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত 2 জঙ্গিকে বধ করে দারুন উপহার দিলো ভারতীয় সেনা !

দিপাবলীর শুরুতেই সেনা ৪ জঙ্গি মেরে ভারতীয়দের উপহার দিয়েছিল এখন আরো একটা উপহার সেনার তরফ থেকে পেলো ভারতবাসী।সেনা -জঙ্গির গুলির লড়াই এর ফলে পুনরায় উতপ্ত হয়ে উঠলো উপত‍্যকা।জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামা এলাকায় সারারাত যাবৎ চলেছে এই লড়াই।ভারতীয় সেনা কর্তৃক দুই জঙ্গি উদ্ধার হয়েছে ওই এলাকা থেকে ।এখন তল্লাশি চালানো হচ্ছে ওই এলাকায়।শুক্রবার সকাল থেকেই এই লড়াই কে কেন্দ্র করে উতপ্ত ছিল পুলওয়ামা এলাকার আবহাওয়া। তারপর এ শুরু হয় সেনা-জঙ্গির গুলির লড়াই।ওইদিন সকালেই একজন জঙ্গিকে উদ্ধার করা হয় ।সেনা সূত্রের খবর পাওয়া যায় যে জঙ্গিটি ছিল পাকিস্তানের বাসিন্দা। আরও জানা যায় যে জঙ্গিটি ছিল জইশ- ই-মোহাম্মদের দলের সদস্য।এই ঘটনার দরুন গুরুতরভাবে আহত হন এক ভারতীয় জোয়ান।

তিনি এখন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন যদিও তাঁর অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল।এই ঘটনার পর এলাকায় আরও জঙ্গির উপস্থিতি অনুমান করছে ভারতীয় সেনা।তাই রাতভর তল্লাশি চলে পুলওয়াম এলাকায়। তল্লাশি চলাকালীন হামলা হয় ভারতীয় সেনার উপর ।তারই পালটা জবাব দেয় সেনার জওয়ানরা।এরপর আবার শুরু হয় সেনা – জঙ্গির লড়াই।শনিবার সকাল ওই এলাকা থেকে আরও দুটি জঙ্গির দেহ নিকেশ করা হয়েছে।

গতকাল রাতের এনকাউন্টার এর ফলেই এই দুই জঙ্গির মৃত্যু ঘটেছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনার।তবে এই দুই জঙ্গিদ্বয় এর মধ্যে একজন এরও নাম ,পরিচয় জানা যায়নি ।এই জঙ্গিরা যে কোন জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্য তা নিয়েও কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি ।তবে জঙ্গিদ্বয়ের পোশাক দেখে তাদের জইশ- ই- মোহাম্মদের দলেরই সদস্য বলে অনুমান করছে ভারতীয় সেনা।জঙ্গিদ্বয়ের কাছে ছিল অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র যেমন ইনসাস রাইফেল গুলিসহ আরও বেশকিছু আগ্নেয়াস্ত্র।

জানিয়ে দি পাকিস্থান ইসলামের নামে যুবকদের উস্কানি দিয়ে জঙ্গি তৈরি করেছে এবং জঙ্গিদের ভারতে পাচার করছে। যেহেতু ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন সামনে তাই মোদী সরকারকে অস্থির করার জন্য পাকিস্থান লাগাতার চেষ্টা চালাচ্ছে অন্যদিকে সেই চেষ্টা বিফল করছে ভারতীয় সেনা।