Press "Enter" to skip to content

অর্থনৈতিক দিক দিয়ে মোদী সরকার দেশের গৌরব ফিরিয়ে দিয়েছে: IMF চিফ

মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর অনেক গুরুত্বপূর্ণ এবং সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভোটের কথা না ভেবে দেশের কথা ভেবেছে বিজেপি সরকার। সেই জন্যই ভোটে কি প্রভাব পড়বে সেই দিকে না চিন্তা করে মোদী সরকার সবসময়ই দেশের কল্যানের কথা চিন্তা করেছে। ক্ষমতায় আসার পর মোদী সরকারের সবথেকে বড় দুটি আর্থিক বিষয়ক পদক্ষেপ হল নোটবন্ধী এবং পুরো দেশে এক ট্যাক্স পদ্ধতি অর্থাৎ জিএসটি লাঘু করা। আর এই দুটি নীতি নিয়েই নানান বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে কিন্তু তার সত্ত্বেও মোদী সরকার পিছু পা হাঁটেন নি। মোদী সরকারের এই দুটি নীতি কি সাধারণ মানুষের জীবন কে প্রভাবিত করেছে সেটার সঠিক প্রমান আমরা ঠিক সময়ে পাব অর্থাৎ আগামী লোকসভা নির্বাচনে। তবে তার আগে জিএসটি নিয়ে বেশ স্বস্থি পেল মোদী সরকার। আইএমএফ প্রধান মরিস ওবসফ্লেডের মারত্মক মন্তব্য এর জন্যই মোদী সরকার এই স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পাড়ল। আসুন উনি ঠিক কি বললেন সেই ব্যাপারে আলোচনা করা যাক।

এইদিন আইএমএফ প্রধান মরিস ওবসফ্লেডের জানিয়েছেন যে, আগের থেকে এই মুহূর্তে ভারতের অর্থনীতির অনেক উন্নত হয়েছে। শেষ চার বছরে ভারত তাদের অর্থনৈতিক দিকটি ব্যাপক চাঙ্গা করে ফেলেছেন। উনি মোদী সরকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে এইদিন বলেছেন যে, ভারতবর্ষের অর্থনীতি চাঙ্গা করার পিছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করেছেন বর্তমান ভারত সরকার অর্থাৎ বিজেপির সরকার। মোদী সরকারের বড় সিদ্ধান্ত জিএসটি ও ইনসলভেন্সি ব্যাঙ্ক্রাফসি কোডের সিদ্ধান্তের জন্যই এই মুহূর্তে ভারতের অর্থনীতির ব্যাপক বিকাশ ঘটেছে। উনার মতে কেন্দ্র সরকার সব সময় গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তই নিয়ে থাকেন ভারতের উন্নতির জন্য।

আইএমএফ প্রধান আরও বলেন, উনি বলেছেন যে, দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় ব্যাপক প্রভাব ফেলে দিয়েছিল দেশের নন ব্যাংকিং সংস্থা গুলি। সেখান থেকে ভারতের অর্থনীতি কে টেনে তোলা সত্যি কষ্টকর হয়ে উঠছিল। তাই বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেন এবং অর্থনীতি চাঙ্গা করার কাজে উঠে পড়ে লেগে যান। উনি বলেন যে শেষ চার বছরে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে অনেক কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে অর্থনীতি চাঙ্গা করার জন্য। কিন্তু সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও সঠিক পদক্ষেপ হল জিএসটি ট্যাক্স চালু করা। তার মতে এর ফলে একদিকে যেমন দেশের অর্থনৈতিক ঘাটতি পূরণ হচ্ছে। তেমনি অন্যদিকে দেশের সাধারন খেটে খাওয়া মানুষও ব্যাপক উপকৃত হয়েছেন।

আপনাদের আরও একটি বিশেষ তথ্য দিয়ে রাখি আইএমএফ প্রধান মরিস ওবসফ্লেড এই মাসেরই শেষ দিকে অবসর গ্রহণ করবেন। তার পরিবর্তে সেই পদে এবার বসতে চলেছেন গীতা গোপীনাথ। ইনি দ্বিতীয় ভারতীয় হিসাবে এই পদে বসতে চলেছেন।
#অগ্নিপুত্র

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.