Press "Enter" to skip to content

বদলে যাবে ভারতীয় রেলস্টেশনের রূপ! মোদী সরকারের এই যোজনায় এয়ারপোর্ট এর সুবিধা পাওয়া যাবে রেলস্টেশনে।

এত বড় দেশ হওয়া সত্ত্বেও ভারতের মতো দেশ নিজের সমস্থ সুরক্ষা দিকে সচেষ্ট হতে পারেনি। এত বড় দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে কট্টরপন্থীরা ঢুকে দেশের ক্ষতি করতে পারে। বিশেষ করে দেশের মধ্যে থাকা বড় বড় রেল স্টেশনগুলি সুরক্ষিত না থাকায় যেকোনো সময় জঙ্গি, জিহাদি শক্তি ভারতের জনগণের হানি করতে পারে। তবে এবার খুব শীঘ্রই সেই সময় আসছে যখন রেল স্টেশনে বসে থাকা যাত্রীরা এয়ারপোর্টের থাকার অনুভব করবে। এয়ারপোর্ট এ যেভাবে কিছু সময় আগে থাকতে পৌঁছাতে হয় সেই একইভাবে রেলস্টেশনেও সময়ের আগে পৌঁছাতে হবে। আসলে ের জন্য মোদী সরকার বিশেষকিছু যোজনা করে ফেলেছে যারপর রেলের দিশা ও দশা দুটোই পরিবর্তন হয়েছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী সরকার এয়ারপোর্টে এর বেশকিছু নিয়ম রেলস্টেশনে লাগু করতে চলেছে।

ব্যবস্থাপনা এমনভাবেই করা হবে যে যদি আপনি ট্রেনের ১৫-২০ মিনিট আগে না পৌঁছান তাহলে ট্রেন আপনি নাও ধরতে পারেন। ট্রেন ছাড়ার ১৫-২০ মিন আগে প্লাটফর্ম সিল করে দেওয়া হবে। এই ব্যবস্থা এখন ভারতের উত্তরপ্রদেশ ও কর্ণাটক রাজ্যের দুই স্টেশনে করা হয়েছে। একইসাথে ২০২ রেল স্টেশনে এই পরিকল্পনা লাগু করার সিধান্ত নেওয়া হয়েছে। এয়ারপোর্টে যেভাবে সুরক্ষা ব্যাবস্থার উপর লক্ষ রাখা যায় সেই একইভাবে রেল স্টেশন এর সুরক্ষা ব্যাবস্থার উপরেও রাখা হবে।

রেল আধিকারিকের মতে কুম্ভের প্রয়াগরাজ স্টেশন এ এই ব্যবস্থা তাৎক্ষনিকভাবে শুরু করা হয়েছে। কুম্ভ মেলায় হিন্দুদের সুরক্ষার কথা চিন্তা সরকার এই স্টেশন বেছে নিয়েছে। স্টেশন এর মধ্যে ইন্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেম লাগু করা হবে যার মধ্যে সিসিটিভি ক্যামেরা, কন্ট্রোলিং একসেস, পার্সোনাল ব্যাগেজ স্ক্রিন, বম ডিটেকশন, বম ডিপোজাল এর মতো ব্যবস্থাপনা থাকবে। জানিয়ে দি, ২০১৬ সালে মোদী সরকার এই যোজনা চালু করে দিয়েছে।

এছাড়াও এক বিশেষ সফটওয়ার দিয়ে তৈরি ব্যবস্থাপনার মধ্যে দিয়ে সকলে পারাপার করতে হবে যার ফলে হানিকারক কিছু স্টেশন এর মধ্যে দিয়ে নিয়ে গেলে খুব সহজেই ধরা পড়ে যাবে। তবে শুধু স্টেশন এর ভেতরেই নয়, স্টেশন এর বাইরেই মোদী সরকার জোর দিয়ে কাজ শুরু করেছে। ভারতে মাল গাড়ির বর্তমান গতিবেগ ২৩কিমি/ঘন্টা। সরকার মালগাড়ির জন্য আলাদা লাইন তৈরি করছে যাতে মালগাড়ির গড় গতিবেগ ৭০কিমি/ঘন্টায় পৌঁছে যাবে। মালগাড়ির কারণে বহু সময় ট্রেন লেট হয় সেই সমস্যা থেকে সম্পূর্ণ মুক্তি পাবে দেশবাসী।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.