Press "Enter" to skip to content

হিন্দুদের আতঙ্কবাদী প্রমান করতে সিনেমা রিলিজ করছে বলিউড! গীতার অপমান করে হিন্দু বিরোধী ষড়যন্ত্র করছে বলিউড।

বলিউডে জিহাদি দাউদ এবং ক্রিপ্টো খ্রিষ্টানদের প্রভাব বহু সময় ধরে চলে আসছে। যার জন্য বলিউড অতি চালাকির সাথে হিন্দু বিরোধী মানসিকতার প্রমোট করে চলেছে। বলিউডে যে তিন খান আজ অভিনয়ের জগতে এত নাম কামিয়েছে সেটাও জিহাদি দাউদের কারণেই। বলিউডের বিখ্যাত লেখক, প্রডিউসার সেলিম ও জাবেদ বহু সময় থেকে সিনেমার মাধ্যমে হিন্দু ধর্মের মজা উড়িয়ে আসছে এবং ইসলাম-খ্রিষ্টান ধর্মকে মহান দেখানো চেষ্টা করছে। শোলে, দিবার, জঙ্গির,শান,ক্রান্তি, অমর-আকবর-আন্তোনি, ইত্যাদি সিনেমাগুলোতে হিন্দুদের হয় মজা উড়িয়ে অন্যদিকে বাকি ধৰ্মগুলিকে মহান দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। একইসাথে দাউদের এই শিষ্যরা সিনেমার মাধ্যমে শিখ সম্প্রদায়কে মজার পাত্র দেখানোর বহু চেষ্টা করেছে।

শুধু তাই নয়, হিন্দুদের মধ্যে জাতিগত ভেদাভেদকে প্রমোট করার জন্য সিনেমার মাধ্যমে ব্রাহ্মনকে লোভী, গরু পালনকারীকে(গোয়ালা) বুদ্ধিহীন, হিন্দু বণিক সম্প্রদায়কে সুদ খোর ইত্যাদি দেখানো হয়েছে। অন্যদিকে আলী,খান, ডিসুজা তথা মুসলিম-খ্রিষ্টান চরিত্রগুলির মহিমামন্ডন করে দেখানো হয়েছে। বলিউডে অপরাধীদের মহান ও উদারবাদী দেখানোর কাজও ব্যাপক হারে হয়ে আসছে। সম্প্রতি কিছু সময় আগেই শাহরুখ খানের একটা সিনেমার সবথেকে ভাইরাল ডায়ালগ ছিল-আম্মিজান কেহেতি হ্যায়, কৈ ভি ধান্দা ছোটা ইয়া বড়া নেহি হোতা হ্যায়। এর অর্থ স্পষ্ট, কাজ কাজ হয় সেটা মদের ব্যাবসা হোক আর ভালো কোনো ব্যাবসা হোক। তবে যাইহোক মুসলিম চরিত্র রাইস একজন উদারবাদী ব্যাবসাদার। আমির খানের সিনেমা PK তে ভগবানের রং নাম্বার দেখানো হয়েছে কিন্তু আল্লাহর রং নাম্বার বলার সাহস তার নেই।

যাইহোক বলিওড এখন আরো একটা সিনেমা নিয়ে হাজির হতে চলেছে যেখানে দেখানো হচ্ছে হিন্দু ধর্মগ্রন্থ গীতা আতঙ্কবাদকে প্রমোট করে। কংগ্রেস অনেকে আগেই হিন্দু আতঙ্কবাদ শব্দের উৎপত্তি করেছিল। যদিও আদালতে সব সত্য প্রমাণিত হয়েছে এবং কংগ্রেসের ষড়যন্ত্র সকলের সামনে  প্রকাশিত হয়েছে। তবে বলিউড এখন একটা সিনেমা নিয়ে হাজির হয়েছে যার মাধ্যমে বোঝানো হয়েছে যে গীতা আতঙ্কবাদকে প্রমোট করে। সিনেমার নাম-India’s most wanted, বলা হয়েছে যে সিনেমা নাকি বাস্তব ঘটনার উপর নির্ভর করে তৈরি। সিনেমার মূল চরিত্রে অভিনয় করছেন অর্জুন কার্পুর।

আতঙ্কবাদীরা কোরানের আয়াত পড়ে মানুষের গলা কাটে এটা সকলেই জানে এবং অনেকে ভিডিওও দেখেছে। কিন্তু গীতার শ্লোক পড়ে কেউ নিরীহ লোকজনকে মারে এমন কেউ দেখা তো দূর শোনেওনি। এখন যুবকদের মধ্যে ওই মানসিকতাকে জন্ম দেওয়ার জন্যই এই সিনেমা তৈরি হচ্ছে। এখন আপাতত সিনেমার ট্রেশার রিলিজ হয়েছে। যেখানে দেখানো হয়েছে, এক আতঙ্কবাদী গীতার শ্লোক পড়ে জিহাদ করছে। অর্থাৎ মানুষ গীতা পড়ে সেটা ভুল বুঝে আতঙ্কবাদী হতে পারে এই ধারণা মানুষের মধ্যে ঢোকানোর জন্য প্রয়াস শুরু হয়েছে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.