Press "Enter" to skip to content

মন্দাসৌরে ধর্ষণের শিকার আট বছরের শিশুর থেকে বিজেপি সরকারের দেওয়া ঘর ছিনিয়ে নিলো কংগ্রেস

বুধবার মন্দাসৌরে ধর্ষণের শিকার হওয়া আট বছরের বাচ্চার জন্য আবন্টিত করা ঘর খালি করার নির্দেশ দিলো ইন্দোর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। ওই ধর্ষণের শিকার হওয়া বাচ্চার জন্য ওই শহরেই একটি ঘর আর একটি দোকান আবন্টিত করা হয়েছিল। আধিকারিকদের কাছে ওই নির্যাতিতা শিশুর ঘর কেড়ে নেওয়ার কথা জিজ্ঞাসা করলে তাঁরা বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপানর চেষ্টা করে।

হিন্দুস্তান টাইমস এর রিপোর্ট অনুযায়ী তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ শিং চৌহান নির্যাতিতা শিশুর পুনর্বাসনের জন্য প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল। সেই প্যাকেজে ইন্দোরে একটি ঘর আর দোকান দেওয়া হয়েছিল ওই শিশুকে। তৎকালীন বিজেপি সরকারের অধীনে থাকে ইন্দোর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ নির্যাতিতার পরিবারকে জেলা প্রসাশনে একটি ঘর দিয়েছিল। আর ওই শিশুর জন্য মন্দির চত্বরে একটি দোকান দিয়েছিল। তাছাড়াও ওই শিশু আর তাঁর দুই ভাই বোনকে ইন্দোরের এক প্রতিষ্ঠিত স্কুলে ভর্তি করানো হয়েছিল।

মন্দাসৌরে ধর্ষিতার পরিবারের সাথে বিজেপি এমএলএ

আট বছরের ওই বাচ্চা ধর্ষণের শিকার হওয়ার সময় তৃতীয় শ্রেণীতে পাঠ্যরত ছিল। তাঁর সাথে ২০১৮ এর ২৬শে জুন দুজন অমানবিক ভাবে গণধর্ষণ করেছিল। তাকে স্কুল থেকে অপহরণ করে নিয়েছিল ওই দুই ধর্ষক। ওই শিশুকে ধর্ষণ করার পর তাঁর গলা কেটে দিয়েছিল ধর্ষকেরা। কিন্তু ভগবানের কৃপায় স্থানীয় মানুষের নজরে ওই শিশুর রক্তাত্ব দেহ নজরে আসার পর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

ইন্দোরের সরকারী হাসপাতালে পাঁচ মাস পর্যন্ত ওই শিশুর চিকিৎসা করানো হয়েছিল। দুই ধর্ষককে দোষী সাব্যস্ত করে মাত্র এক মাসের মধ্যে বিজেপির সরকারের উদ্যোগে আদালত তাঁদের ফাঁসির সাজা ঘোষণা করেছিল। নির্যাতিতার বাবা বলেন, ‘যখন রাজ্যে সরকার বদলালো, তখন অনেকেই আমাকে বলল আমাকে মন্দাসৌর যেতে হবে কারণ সরকার বদলে গেছে। আর তাঁদের আশঙ্কা সত্য প্রমাণিত হল। প্রাক্তন সরকারের দেওয়া দোকান আর ঘর ছিনিয়ে নিতে চলেছে নতুন কংগ্রেস সরকার”

7 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.