Press "Enter" to skip to content

বড় খবর: ঘুম উড়লো চীন ও পাকিস্তানের ! ভারতে পারমানবিক সাবমেরিন INS এর পেট্রোলিং সফলভাবে সম্পূর্ণ হল

সমুদ্রে প্রথম পেট্রোলিং শেষ করে সোমবার দিন পরমাণু অস্ত্রে সুসজ্জিত INS আরিহান্ট দেশে ফিরলো। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী INS আরিহান্ট এর টিমকে স্বাগত জানিয়েছেন এবং এটাকে দেশের শত্রুদের জন্য একটা বড়ো চ্যালেঞ্জ এর বিষয় বলেও ঘোষণা করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, যারা পারণাবিক শক্তির ভয় দেখায়,INS আরিহান্টের সাফল্য তাদের জন্য যোগ্য জবাব। জানিয়ে দি, এটা দেশে তৈরি প্রথম পরমাণু শক্তিচালিত ডুবোজাহাজ যাকে নৌসেনায় ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে কমিশনড করা হয়েছিল। নৌসেনার কাছে INS আরিহান্ট আসার পর সেটাকে পেট্রোলিং এ পাঠানো হয়েছিল যা ীয় সমুদ্র সীমা ও আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমার নানা অংশ ঘুরে, আক্রমন চালানোর নানা মহড়া সফলভাবে সম্পন্ন করে ফিরে এসেছে নির্দিষ্ট বন্দরে।

দেশের সামরিক বাহিনী, নৌসেনার কর্তৃপক্ষ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই সাফল্য খুবই খুশি। কারণ আরিহান্টের সাফল্যের জন্যই ভারতের “পরমাণু ত্রিশূল” আনুষ্ঠানিকভাবে সফল হয়েছে। এই পরমাণু ত্রিশূল হলো জল, স্থল ও বায়ু থেকে শত্রুর উপর পরমাণু হামলা চালানোর সক্ষমতা।

ভারতের বায়ু সেনা ও স্থল সেনা আগে থেকেই পরমাণু হামলা করার ক্ষমতা অর্জন করেছিল। এখন INS আরিহান্টের সাফল্য সমুদ্র থেকেও আক্রমণ কররা শক্তি অর্জন করলো ভারত। এই ক্ষমতা আগে মূলত আমেরিকা ও রাশির কাছে ছিল বলে ধরা হতো তবে এবার ভারত এই ক্ষমতা অর্জন করে নিয়ে বিশ্বকে অবাক করে দিলো।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘INS আরিহান্ট ভারতের গর্ব যা ধনতেরাসের দিন দেশে ফিরে এসেছে। এটা একটা ঐতিহাসিক সাফল্য , এই সাবমেরিনের জন্য বিশ্বে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় থাকবে। আমি সমস্থ সদস্যদের অভিনন্দন জানাই যারা এই কাজ সম্পূর্ণ করেছেন।” নরেন্দ্র মোদী ও চীনকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ভারত কখনোই আগে থেকে পরমাণু আক্রমণ করবে না কিন্তু যদি কোনো দেশ ভারতের উপর আক্রমণ করে তাহলে ভারতও পরমানু আক্রমন করবে।