তথ্য না জেনেই যারা ডলার ও টাকার তুলনা নিয়ে মোদী সরকারকে প্রশ্ন করছে, তারা এই পরিসংখ্যান দেখার পর বাকরুদ্ধ হবে।

ডলারের তুলনায় ভারতীয় টাকার মূল্যের পতন ঘটেছে। ডলারের তুলনায় এখন ইন্ডিয়ান রুপীস ৭০ পার হয়েগেছে। বিরোধীদের দাবি ডলারের তুলনায় ভারতীয় মুদ্রার এটা এখনো অবধি সবথেকে বড় পতন। এই বিষয় নিয়ে বিরোধী পার্টির নেতারা মেতে উঠেছে এবং সরকারকে ফেলার কথা বলছে। ডলারের তুলনায় ভারতীয় রুপিসের মূল্যের পতনের কারণে কংগ্রেস থেকে বামপন্থী সকলেই সরকারের উপর আক্রমণ শুরু করে দিয়েছে। এমনকি কিছুজন তো প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ইস্তফা পর্যন্ত দাবি করেছেন। জানিয়ে দি, ডলারের তুলনায় ভারতীয় রুপিসের মূল্য কমেছে এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু এই বিষয় নিয়ে এমন তথ্য আপনাদের জানাবো যারপর বিরোধীদের মুখে তালা পড়বে। নীচে কিছু দেশের মুদ্রার সাথে ডলারের মূল্যের পার্থক্য এর সূচনা দেওয়া হয়েছে। যেখানে পাঁচ বছর আগে অর্থাৎ ২০১৩ ও বর্তমানের অর্থাৎ ২০১৮ এর পরিসংখ্যান রয়েছে।

২০১৩ এর কংগ্রেস আমলের তুলনায় এখন কতটা কমতি এসেছে তা ছবি দেখলে স্পষ্ট বুঝতে পারবেন। নীচের সূচিতে ভারত ছাড়া আরো কিছু দেশের কারেন্সি ও ডলারের তুলনায় কত পার্থক্য এসেছে তা বলা হয়েছে। সবার প্রথমে যদি রাশিয়ার রুবেলের কথা বলা হয় তাহলে, রুশ বিশ্বের শক্তিশালী আর্থিক ব্যাবস্থাগুলির মধ্যে একটা । ২০১৩ সালে রুশ রুবেলের মূল্য ডলারের তুলনায় ছিল ৩৩.২৯ যা বর্তমানে হয়েছে ৬৮.৩১ অর্থাৎ রুবেল ও ডলারের পার্থক্য এ প্রায় দ্বিগুণ সংখ্যক পরিবর্তন এসেছে।

একইভাবে যদি আপনি হাঙরিয়ান ফরিয়েন্ট এর দিকে লক্ষ করেন তাহলে যা ২০১৩ তে ২২৮.৯০ ছিল তা ২০১৮ সালে ২৮০.২৫ এ পরিণত হয়েছে। এরপর শ্রীলঙ্কার দিকে লক্ষ করলে দেখা যাবে যা ২০১৩ তে ১৩২.৯৬ ছিল তা বর্তমানে ১৬০.৭৭ এ চলে এসেছে। এখন যদি আমরা ভারতের কথা বলি তাহলে ২০১৩ সালে অর্থাৎ কংগ্রেস আমলে ডলারের তুলনায় রুপীস ছিল ৬৫.৭১ যা এখন মোদী আমলে ৭০.৭৫ পৌঁছেগেছে। অর্থাৎ এটা স্পষ্ট যে প্রায় সবদেশের কারেন্সিতে ডলারের তুলনায় কমতি এসেছে। কিছু দেশে এই পরিবর্তন দ্বিগুণের থেকেও বেশি হয়েছে।

যেখানে ভারতের রুপীস ৫ বছরে ৫ রুপীস দুর্বল হয়েছে। এরপরেও দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করে মোদী সরকারকে আক্রমন করা হচ্ছে। লক্ষনীয় বিষয় যে কারেন্সির দুর্বল হওয়া আন্তর্জাতিক বিষয়ের উপর নির্ভর করে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী এই বিষয়টি তেমন কোনো চিন্তনীয় বিষয় নয়। সময়ের সাথে সাথে এর মধ্যে পরিবর্তন আসবে। এমনকি RBI এর পূর্ব গভর্নর রঘুরাম রাজন যিনি কংগ্রেসের খুব প্রিয় ছিলেন, তিনি পর্যন্ত এই বিষয়ে মোদী সরকারের দিকেই সায় দিয়েছেন। রঘুরাম রাজন জানিয়েছেন এই বিষয়গুলি আন্তর্জাতিক মামলার উপর নির্ভরশীল। এতে কোনো চিন্তার কারণ নেই। রাঘুরাম রাজন রুপিসের মূল্যের উপর লক্ষ না দিয়ে ভারতের GDP এর উপর লক্ষ রাখার উপদেশ দিয়েছেন। রাজন বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দামের কারণে টাকা দুর্বল হয়েছে, তবে ভারত বর্তমানে যে GDP গ্রোথ নিয়ে এগোচ্ছে তা একটা বড়ো উপলদ্ধি।

you're currently offline

Open

Close