Press "Enter" to skip to content

ভুটানকে সাথে নিয়ে চীনকে বড় ঝটকা দিল মোদী সরকার! ভারতের স্পেস কূটনীতিতে চাপে পড়লো চীন।

“এক ভারত শ্রেষ্ঠ ভারত” হওয়ার পথে যে ভারতবর্ষ এগিয়ে চলেছে তার আভাস বেশ ভলোরকম ভাবেই পাওয়া যাচ্ছে। যদি ভারত দেশ এইভাবে কুশল নেতৃত্বের হাত ধরে বিকাশের পথে চলতে থাকে তাহলে আগত দশকে ভারত বিশ্বকে নেতৃত্ব দেবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বাণিজ্যিক, অর্থনৈতিক দিক থেকে উন্নতি করার সাথে সাথে প্রতিবেশী দেশগুলিক কাউন্টার দেওয়ার জন্যেও ভলোরকম পস্তুতি নিচ্ছে মোদী সরকার। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ইসরো ভুটানের গউন্ড স্টেশন তৈরি করা শুরু করে দিয়েছে। এই স্টেশন রণনীতির দিক থেকে ভারতীয় সেনাকে খুবই সাহায্য করবে। এই স্টেশন ভারত ও চীনের ঠিক মধ্যেস্থলে করা হচ্ছে যাতে ভারত চীনের প্রভাবকে টক্কর দিতে পারে। সম্প্রতি ভুটানের নতুন প্রধানমন্ত্রী লোতেয়ে শেয়ারিগ এর সাথে নরেন্দ্র মোদীর বৈঠক করেন যারপর প্রধানমন্ত্রী এই স্টেশন এর ব্যাপারে উল্লেখ করেন।

প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন এই স্টেশন ভুটানের জলবায়ু নির্দেশক বার্তা হিসেবে কাজ করবে একইসাথে টেলি মেডিসিন ও বিপর্যয়ের বার্তাও অগ্রীম প্রদান করবে। জানিয়ে দি ভারতের এই গ্রাউন্ড স্টেশন চীনের লঞ্চ করা সমস্থ স্যাটেলাইটকে ট্রাক করতে সক্ষম হবে। আসলে ভারতের লঞ্চ করা স্যাটেলাইট এর উপর নজর রাখার জন্য চীন একটা স্টেশন তৈরি করেছিল।

এখন সেই স্টেশনকে টক্কর দেওয়া জন্য চীনের থেকেও আধুনিক ও উন্নত ক্ষমতা সম্পন্ন স্টেশন তৈরি করতে চলেছে ভারত। তবে এই স্টেশন ভুটানে তৈরি করা হবে এবং এর জন্য ভারত সরকার ভুটানকে আর্থিক সাহায্য করার সিধান্ত নিয়ে ফেলেছে। ভারত সরকার ভুটানকে ৪৫০০ কোটি টাকার আর্থিক সাহায্য করার ঘোষণা করেছে। ভারতের সাথে চীনের বর্ডার খুবই দীর্ঘ কিন্তু অরুনাচলপ্রদেশ এলাকায় চীন নিজের প্রভাব বরাবর বাড়ানোর চেষ্টা করে। ওই এলাকায় চীন ওই এলাকায় স্যাটেলাইট ট্রাকিং এবং ডেটা রিসেপশনে সেন্টার তৈরী করে রেখেছে যাতে ভারতের গরিবিধির উপর নজর রাখা যায়। কিন্তু ভারত সরকারও এখন ভুটানকে সাথে নিয়ে চীনকে চাপে ফেলতে শুরু করেছে।

শুধু গ্রউন্ড স্পেস স্টেশন নয়, একই সাথে ভারত ভুটানে হাইড্রোইলেক্ট্রিক প্ল্যান্ট তৈরি করছে। বিগত দশকে ভুটান চীন দ্বারা প্রভাবিত একটা দেশ ছিল অর্থাৎ চীনের উপর নির্ভর করেই সমস্থ সিধান্ত গ্রহন করতো কিন্তু মোদী ক্ষমতায় আসার পর এই খেলা পুরো পাল্টে গেছে। এখন ভুটান ভারতের উপর নির্ভরশীল এবং ভারতের ভালো সাথী হিসেবে সামনে আসতে শুরু করেছে। তবে শুধু ভুটান নয়, ইসরো শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ সহ মোট ৫ টি দেশে গ্রউন্ড স্টেশন তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Be First to Comment

Leave a Reply