Press "Enter" to skip to content

দেশবিরোধীতার অভিযোগে পাকিস্থান সমর্থক স্বামী অগ্নিবেশকে পেটালেন বিজেপির যুবমোর্চার ছেলেরা।

স্বামী অগ্নিবেশ যিনি নিজেই নিজের নামের আগেই স্বামী লাগিয়ে নিজেকে হিন্দুদের স্বামী বলে প্রচার করেন। আজ স্বামী অগ্নিবেশকে ঝাড়খণ্ডে বিজেপির যুবা মঞ্চের যুবকেরা পিটিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর এই বিষয় নিয়েই মিডিয়া বিজেপি বিরোধী প্রচার শুরু করে দিয়েছে। আসলে কিছু মিডিয়া ও বিরোধীরা প্রচার করছে এই যে বিজেপি একটা হিন্দু স্বামীজিকে পিটিয়েছেন। আর এই অপপ্রচার চালিয়ে তারা প্রমান করতে ব্যাস্ত হয়েগিয়েছে যে বিজেপি একটা হিন্দু বিরোধী পার্টি যারা একটা গেরুয়া বস্ত্র পরা ব্যাক্তিকে পিটিয়েছে।

আসলে এই অগ্নিবেস এর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল যে তিনি খ্রিস্টান মিশনারিদের সাথে মিলে আদিবাসীদের উস্কানি দিচ্ছিলেন দেশ বিরোধী কাজ করার জন্য। হ্যাঁ এটা ঠিক যে গনতান্ত্রিক দেশে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া উচিত নয়। তবে এই হিন্দু নামধারী এই অগ্নিবেসের বিরুদ্ধে এমন কিছু তথ্যে রয়েছে যা জানার পর আপনিও রেগে যাবেন। আসলে আপনার যদি আগে কখনো এই অগ্নিবেস এর নাম শুনে থাকেন তাহলে জানবেন যে ইনি বেশিরভাগ সময় কংগ্রেসের পক্ষ নিয়েই কথা বলতেন এবং কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নবাদী নেতাদের সাথে এনার খুব কাছের সম্পর্ক ছিল। জানলে অবাক হবেন স্বামী অগ্নিবেশ ইয়াসিন মাল্লিকের এর সাথে হাঙ্গার স্ট্রাইক এ বসেছিলেন। পাকিস্থানি সমর্থক ইয়াসিন মাল্লিকের বক্তব্য ছিল যে কাশ্মীরি পন্ডিতদের যেন কাশ্মীরে ফিরিয়ে আনা না হয়। আসলে মোদী সরকার জানিয়েছিল যে কাশ্মীরে কাশ্মীরি পন্ডিতদের জন্য একটা টাউন তৈরী করে সেখানে তাদের ফেরানো হবে। কিন্তু হিন্দুবিরোধ ইয়াসিন মাল্লিক কাশ্মীরি পন্ডিতদের না ফেরানো জন্য স্ট্রাইক এ বসেন আর তার সাথে বসেন এই হিন্দু নামধারী স্বামী অগ্নিবেশ।

শুধু এই নয় স্বামী অগ্নিবেস সংখ্যালঘু যুবকদের বন্দেমাতারম না বলার জন্য উস্কানি দিয়েছিলেন। এমনকি অমরনাথ যাত্রার বিরুদ্ধেও মন্তব্য করেছিলেন এই স্বামী অগ্নিবেশ। এইসকল তো বাদ দিন স্বামী অগ্নিবেশ বিদেশেও ভারতবিরোধী কার্যকলাপের জন্য কুখ্যাত হয়েছেন। স্বামী অগ্নিবেশ বিদেশে গিয়ে ভারতের এমন মানচিত্র দেখান যেখানে কাশ্মীরকে ভারত থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এখন এই বিষয় পরিষ্কার যে স্বামী অগ্নিবেশ কি ধরণের স্বামী ছিলেন।

নিচের টুইট ও ভিডিওতে স্বামী অগ্নিবেশের দেশবিরোধিতার চিত্রগুলি দেখুন-