Press "Enter" to skip to content

JNU এর দুর্দান্ত সিধান্ত! পরিবর্তন করা হবে নামের,এবার অটল বিহারী বাজপেয়ীর নামে JNU..

দেশের পূর্ব প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপায়ীজির স্বর্গবাসের পর দেশের মানুষ নিজের নিজের মতো করে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করছে। অটলজির প্রতি সম্মান জ্ঞাপনের জন্য বহু জায়গায় ও স্থানের নাম পরিবর্তন করে অটলজির নামে রাখা হচ্ছে। এইভাবেই দিল্লীর নামকরা জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়তেও একটা বড়ো পরিবর্তন করা হচ্ছে। আপনাদের জানিয়ে দি সেই বিশ্ববিদ্যালয় যা ভারত বিরোধী শ্লোগানের জন্য দেশজুড়ে কুখ্যাতি লাভ করেছিল এবং মিডিয়ার চর্চার বিষয়ে পরিণত হয়ে উঠেছিল। এই ইউনিভার্সিটির একটা ভিডিও খুব ভাইরাল হয়েছিল। যেখানে দেখা যাচ্ছিল যে ক্যাম্পাসে ভারত তেরে টুকরে হোঙ্গে ইনশাল্লাহ ইনশাল্লাহ, পাকিস্থান জিন্দাবাদ ও আফজল গুরুর সমর্থনে শ্লোগান দিচ্ছিল কিছু ছাত্রছাত্রী।

এখন অটলজির নিধনের পর আরো একবার JNU এর চর্চা তুঙ্গে উঠে এসেছে। আপনাদের জানিয়ে দি, JNU নিজেরদের একটা সংস্থার নাম পরিবর্তনের সিধান্ত নিয়েছে। JNU এই তরফে প্রেস রিলিজ করে এই পস্তাব এর কথা বলা হয়েছে। কংউন্সিলের বৈঠকে ঠিক হয়েছে স্কুল অফ ম্যানেজমেন্ট এন্ড এন্টারপিনিওরশিপের নাম বদলে স্কুল অফ ম্যানেজমেন্ট এন্ড এন্টারপিনিওরশিপ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এই স্কুল JNU এই অন্তর্গত।  কাউন্সিলের এই সিধান্ত এ যে বামপন্থী ও কট্টরপন্থীদের বড়ো জোর ধাক্কা লাগবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বৃহস্পতিবার দিন JNU এর ২৭৫ এর কার্যকরী সমিতির বৈঠকে আধিকারিকভাবে বলা হয়েছে ২০১৯-২০ বছরেই স্কুল অফ ম্যানেজমেন্ট এন্ড এন্টারপিনিওরশিপ এর নাম বদলে অটলজির নামে রাখা হবে। এর আগে ছটত্রিশগড়ের রাজধানী রায়পুরের নাম বদলে অটল নগর নাম রাখার ঘোষণা করা হয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের পর শাহেলা রাশিদি, উমর খালিদ ও কানায়াই কুমারের মতো লোকেদের বড়ো ঝটকা লাগবে কারণ এরা সরকার ও বিজেপির তীব্র বিরোধী। প্রসঙ্গত আপনাদের জানিয়ে রাখি এই কট্টরপন্থীরা JNU তে জাতীয় পতাকা লাগানো বিরোধিতা করেছিল। এমনকি JNU ক্যাম্পাসে সেনার পুরানো ট্যাঙ্ক লাগানোর বিরোধিতা করেছিল এই কট্টরপন্থীরা।  আপনাদের জানিয়ে রাখি সরকার কিছুদিন অভ JNU তে একটা বড়ো পদক্ষেপ নিয়েছিল। সরকার JNU তে ওয়াল অফ হিরোস এর একটা সৌর্জ দেয়াল তৈরি করেছে। যার মাধ্যমে JNU তে নতুন আগত ছাত্রছাত্রীদেরকে বামপন্থীদের চিন্তা ধারা থেকে দূরে রেখে তাদের মধ্যে রাষ্ট্রভক্তি ও দেশপ্রেম জাগানো যায়।