প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বড়ো মন্তব্য করলেন উনার স্ত্রী যশোদাবেন।

২০১৯ নির্বাচন সামনে আসতে চলছে আর সেই ভিত্তিতে কংগ্রেস সমস্ত বিরোধী দলগুলিকে এক করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী পদে আসার মাত্র ৪ বছরের মধ্যে কংগ্রেসের অবস্থা এমন করেছে যে তারা এখন একা একা নির্বাচন লড়ার ব্যাপারে ভাবতেও পারছে না। তাই কখনো সুপ্রিম কোর্টের জাজের বিরুদ্ধে মহাভিযোগ প্রস্তাব আনে আবার কখনো পূর্নবহুমত প্রাপ্ত সরকারের বিরুদ্ধে অবিশ্বাস প্রস্তাব এনে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে। অন্যদিকে শিবসেনাও বিশ্বাসঘটকতা করা শুরু করে দিয়েছে। এই রকম অবস্থায় যখন সকলে বিরোধিতায় নেমে পড়েছে সেই সময় তখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্ত্রী যশোদা বেন নিজে প্রধানমন্ত্রীর সাথ দেওয়ার জন্য এগিয়ে এসেছে।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, বাল্য অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয়েছিল যার পর উনি ঘর বাড়ি ছেড়ে দেশের সেবা করার জন্য বেরিয়ে পড়েছিলেন। অন্যদিকে যশোদাবেন উত্তরাখণ্ডে একটা সংগঠন এর স্থাপনা দিবস উপলক্ষে পৌঁছেছিলেন। সেখানে যশোদাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে চমকে দেওয়ার বক্তব্য রেখেছেন। যশোদাবেন বলেন দেশ আগে বাড়ুক এই আমার কামোনা।

উনি বলেন, বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও এই সন্দেশ জনগণের কাছে পৌঁছান। যশোদাবেনের এই কোথায় ভরপুর তালি পড়ে এবং সভায় আলোড়ন সৃষ্টি করে। যশোদাবেন ভারত মাতা কি জয় এবং বন্দেমাতরাম বলে সভার উদ্বোধন করেন। সভায় উনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাজের খুব প্রশংসা করেন এবং ২০১৯ এ মোদীজিকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য জনগণের কাছে সমর্থন চান।

এটা খুবই বড়ো ব্যাপার যে যশোদাবেন নিজে মোদীজিকে প্রধানমন্ত্রী করার জন্য মানুষের কাছে সমর্থন চান এবং বলেন, মোদীজি আগের থেকে অধিক আসন পাবেন। এটা বলার সাথে সাথে উপস্থিত জনতা উঠে দাঁড়িয়ে যশোদাবেনকে সমর্থন করেন। নরেন্দ্র মোদীজির স্ত্রীর এইরকম ভাষণ থেকে এটা পরিষ্কার যে মোদীজিকে ২০১৯ এ প্রধানমন্ত্রী হতে কেউ আটকাতে পারবেন না। সএতে সাথে যারা প্রধানমন্ত্রী স্ত্রী ও মোদীজির সম্পর্ক নিয়ে কটু কথা বলতেন তাদেরও মুখ চুপ করিয়া দিলেন যশোদাবেন। তবে এই প্রথম নয় এর আগেও উনি বলেছিলেন, মোদীজি আমার কাছে রামের মতো।

you're currently offline

Open

Close