নির্বাচনের ফলাফল আসার আগেই ভয় পেলেন কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধা! ভয়ে বললেন…..

আগামী বছর লোকসভা নির্বাচন তার আগেই কংগ্রেসের যে খারাপ সময় চলে এসেছে সেটা আরও একবার পরিস্কার হয়ে গেল কংগ্রেস নেতা যতীন্দ্র শর্মার কথায়। স্বাধীনতার পর থেকে কংগ্রেস দেশে ৭০ বছর ধরে রাজত্ব চালিয়েছে এবং নামমাত্র উন্নয়ন করেনি বরং দেশকে উন্নতির নামে এক বিশেষ সম্প্রদায়েরকে তোষণ চলেছে। কিন্তু যেদিন থেকে কেন্দ্রে মোদী সরকার এসেছে সেদিন থেকে কংগ্রেসের সমস্ত রকম অসামাজিক কাজকর্ম প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এখন কংগ্রেসকে দেশ থেকে প্রায় বিলুপ্তির পথে ঠেলে দিয়েছে মোদী সরকার। কংগ্রেস যদি দেশের উন্নয়নে নজর দিত তাহলে এতদিনে একটা অন্য পর্যায়ে চলে যেত ভারতবর্ষ। মোদী সরকার এই সাড়ে ৪ বছরে দেশের চরম উন্নতি করছেন তা নিয়েও কোনো সন্দেহ নেই।

কংগ্রেসের সমস্ত ভালো মানুষের মুখোশ গুলি এখন দেশের মানুষের কাছে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। সেই জন্য দেশের মানুষ এখন বুঝে গিয়েছেন যে যদি দেশের উন্নতি করতে চাই তাহলে একমাত্র বিকল্প পথ হচ্ছে মোদী সরকার। যার কারণে এই মুহূর্তে দেশ থেকে কংগ্রেস প্রায় মুছে যেতে চলেছে।
এটা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন যে যখনই বিজেপি কোন জায়গায় ভোটে জিতে তখনই কংগ্রেস তাদের একমাত্র অবলম্বন যেটা সেটা শুরু করে দেয় অর্থাৎ কংগ্রেস তখনই বলতে শুরু করে দেয় যে ইভিএমে গন্ডগোল আছে।

কিন্তু কংগ্রেস যখন কোথাও একটুমাত্র হলেও ভোটে এগিয়ে যায় তখন কিন্তু তারা ইভিএমের কথা মুখেও আনে না। আবার সেরকমই একটা দৃশ্য সবার সামনে চলে এলো। কংগ্রেসের নিশ্চিত হার দেখে এক কংগ্রেস নেতা এখন থেকেই চেঁচামিচি করতে শুরু করে দিয়েছেন ইভিএম নিয়ে। জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধা যিনি কংগ্রেসের বড়ো নেতা বুঝে গিয়েছেন যে তিনি এবার ভোটে বিজেপির কাছে হারতে চলেছেন। সেই জন্য তিনি এখন থেকেই বলতে শুরু করে দিয়েছেন যে ইভিএমে গন্ডগোল আছে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার এটাই যে তারা যতই ইভিএম ইভিএম নিয়ে চেঁচামিচি করুক না কেন তাদের কথায় কেউ কান দিতে নারাজ। কারণ এখন জনতার কাছে এটা পরিষ্কার যে কংগ্রেস হারতে শুরু করলেই ইভিএম নিয়ে এই মিথ্যে ইস্যু টি তুলে ধরেন।
#অগ্নিপুত্র

Leave a Reply

Open

Close