Press "Enter" to skip to content

বিগত ৩৬ ঘণ্টায় সীমান্ত পার করে ভারতে ঢুকতে আসা সাত পাকিস্তানি জঙ্গিকে খতম করেছে সেনা

জম্মু কাশ্মীরে বড়সড় সফলতা পেলো সেনা। সীমান্ত পার করে ভারতে ঢুকতে আসা সাত পাকিস্তানি জঙ্গিকে খতম করেছে সেনা। জঙ্গিদের থেকে প্রচুর পরিমাণে হাতিয়ার এবং বিস্ফোটক উদ্ধার করা হয়েছে। এই জঙ্গিরা বিগত ৩৬ ঘণ্টা ধরে সীমান্ত পেড়িয়ে ভারতে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা চালাচ্ছিল। সেনার মুখপাত্র জানান, পাকিস্তান কাশ্মীরের শান্তি ভঙ্গ করার জন্য এবং অমরনাথ যাত্রীদের উপরে হামলা করার জন্য জঙ্গিদের ভারতে ঢোকার জন্য সাহায্য করছে।

অমরনাথ যাত্রায় হামলা নিয়ে গোয়েন্দা সংস্থা গুলোর ইনপুটের পর সেনা কোমর বেঁধে নেমেছে। সুত্র অনুযায়ী, সেনা প্রতিটি রাস্তায় কড়া নজর গেঁড়ে বসে আছে, আর তাঁর সাথে আরপিএফ এর জওয়ানেরা খাবার, জল আর ট্রাক গুলোকে বিশেষ ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। সেনার এই চিরুনি তল্লাশিতে একটি ট্রাক থেকে আমেরিকার স্নাইপার রাইফেল, পাকিস্তানের অর্ডিন্যান্স ফ্যাক্টরিতে বানানো অ্যান্টি মাইন এবং প্রচুর পরিমাণে বিস্ফোটক উদ্ধার হয়েছিল। এছাড়াও আইইডি সমেত কয়েকজন সন্দেহভাজন জঙ্গিকে গ্রেফতারও করেছিল সেনা।

রিপোর্ট অনুযায়ী, জইশ এ মোহম্মদ এর প্রধান মাসুদ আহাজারের ভাই ইব্রাহিমকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে দেখা গেছে। এছাড়াও জইশ এ মোহম্মদ এর ১৫ জন ট্রেনিং প্রাপ্ত জঙ্গি পেশাওয়ার এবং খাইবার পাখতুনখা এর জঙ্গি ক্যাম্পে পৌঁছে গেছে বলে জানা যাচ্ছে। সুত্রের খবর অনুযায়ী, ওই ১৫ জন জঙ্গি জম্মু কাশ্মীরে ঢোকার জন্য প্রস্তুত হয়েছে। শুক্রবার একটি সংযুক্ত প্রেস কনফারেন্সে লেফটেন্যান্ট জেনারেল কেজিএস ঢিলোন জানান, কাশ্মীরে সেনার তৎপরতায় জঙ্গিদের হামলার ছক বানচাল করা সম্ভব হয়েছে। এবং সেনার তল্লাশি অভিযানে অমরনাথ যাত্রীদের উপর পাকিস্তান সমর্থিত জঙ্গি সংগঠন গুলোর হামলা চালানোর প্ল্যান ভেস্তে গেছে।