Press "Enter" to skip to content

“মোদীজি আপনি পাকিস্থানে আক্রমণ করুন,আমরা আপনার সাথে আছি”: পাকিস্থানি মহিলা।

পাকিস্থান বার বার ভারতে কেন আতঙ্কবাদী আক্রমণ ঘটায়, এটার কারণ অনেকে স্পষ্ট বুঝতে পারে না। আসলে ১৯৪৭ সালে ভারত ভেঙে কট্টরপন্থী মুসলিমরা জিহাদের নামে পাকিস্থান তৈরি করেছিল। পাকিস্থানের সৃষ্টি পুরোপুরি জিহাদ নীতির উপর, পাকিস্থানিরা ভারতকে দারুল হারব মনে করে। পাকিস্থানিদের উদ্যেশে ভারতকে যেনতেন প্রকারে গজবা-এ-হিন্দ তথা ইসলামিক দেশে পরিণত করা। আর এই শিক্ষা পাকিস্থানের প্রত্যেক ছেলে মেয়েকে তাদের বাচ্চা বয়সে মাদ্রাসাতে দেওয়া হয়। এর জন্যেই পাকিস্থান মনে করে যে ভারতকে গাজবা-এ-হিন্দ করারা জন্য তথা জিহাদের নামে ভারতীয়দের প্রাণ গেলে সেটা তাদের জন্য পবিত্র।

পাকিস্থানিরা মনে করে যে যদি তারা ভারতীয়দের হত্যা করতে গিয়ে তারা মারা যায় তাহলে আল্লাহ তাদের জান্নাত প্রদান করবে। পাকিস্থান কট্টর সুন্নি মুসলিম দেশ যারা ভারতীয়দের জ্বালাতন করার সাথে সাথে পাকিস্থানের ভেতরে থাকা বালুচ মুসলিমদেরও উৎপীড়ন করে। একইসাথে পাকিস্থান সিয়া মুসলিম বহুল ইরানের সীমান্তেও আতঙ্কববাদী গতিবিধি চালায়। আর এই সমস্থ কারণের জন্যেই পাকিস্থান বেশ কয়েকটি প্রান্ত পাকিস্থান দেশ থেকে আলাদা হয়ে নতুন দেশ গঠন করতে চাইছে।

পুলবামা আতঙ্কবাদী হামলা নিয়ে যখন পুরো দেশ উত্তাল হয়ে রয়েছে। সেই সময় পাকিস্থানের বেলুচিস্তান প্রদেশের নেতা নেত্রীরা ভারতের সরকারকে সমর্থন জানিয়েছে। বেলুচিস্তান ছাত্র সংগঠনের চেয়ার পারসন “কারিমা বালোচ” বলেছেন ভারত পাকিস্থানের উপর আক্রমণ করুক। উনি বলেছেন আমরা ভারতের সাথে আছি এবং মোদীজিকে পাকিস্থানে আক্রমন করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। কারিমা বালোচ প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ভাই বলে সম্বোধিত করেন এবং পাকিস্থানে আক্রমনের জন্য আহবান জানান।

করিমা বালোচ বলেছেন বেশি দেরি করবেন না, শীঘ্রই আক্রমন করে পাকিস্থানের কোমর ভেঙে দিন। পুলবামা হামলার পর ভারতের সাথে সাথে বালোচ এর জনতাও ভারতের পতাকা হাতে পাকিস্থানকে ধিক্কার জানিয়েছে। কিছু সময় আগেই বালোচদের নেত্রী ঘোষণা করেছিলেন যে তাদের নতুন দেশ তৈরি হলে তারা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সবথেকে বড় মূর্তি নির্মাণ করবে।

6 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.