Press "Enter" to skip to content

দিল্লিতে ৩৫০ টি মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কেটে দিলেন কেজরিওয়াল! বাকি মন্দিরের বিদুৎ কাটার জন্য দেওয়া হলো নির্দেশ।

সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদ তখন হয় যখন সরকার সুযোগ সুবিধা প্রদান করার সময় ভেদাভেদ করে। দিল্লীতে অনেক মুঘল, তুঘলক শাসকরা এসে রাজ করেছে এবং হিন্দুদের উপর অত্যাচার করেছে। তবে দিল্লীর বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী আবার যেন সেই শাসনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আসলে কিছুদিন আগেই ঘোষণা করেছিলেন যে প্রত্যেক মসজিদের ইমাম সহ বাকি সহযোগীদের বেতন দ্বিগুণ করে দেওয়া হবে। প্রত্যেক মসজিদের জন্য মাসে ৪৪ হাজার টাকা ঘোষণা করেছিলেন । আর এখন হিন্দু মন্দিরের বিরুদ্ধে রীতিমত আক্রমন করে দিয়েছেন।

কেজরিওয়াল দিল্লীতে তুঘলক, ওরংজেবের মতো শাসন শুরু করে দিয়েছেন। খবর পাওয়া গেছে যে কেজরিওয়াল ৩৫০ এর বেশি মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছে। দিল্লীতে বিদুৎ সংযোগের কাজ কেজরিওয়াল সরকারের অন্তর্গত BSES করে। BSES ৩৫০ টি মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছে। এখন আরো মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কাটার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

একদিকে মসজিদগুলিকে ৪৪ হাজার টাকা করে প্রদান অন্যদিকে হিন্দু মন্দিরের বিদুৎ কেটে দেওয়া। অর্থাৎ রীতিমত তোষণ নীতি শুরু করে সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদ শুরু করেছে সরকার। দিল্লীতে হিন্দুরা বহুসংখ্যক কিন্তু হিন্দুদের রাজনৈতিক একতা না থাকার জন্য কেজরিওয়ালের রাজনৈতিক দল এর দুর্ব্যবহার শুরু করেছে।

হিন্দুদের একতা না থাকার জন্য হিন্দুদের উপর ধার্মিক উৎপীড়ণ শুরু করেছে অন্যদিকে বাকি সম্প্রদায়ের রাজনৈতিক একতার জন্য তাদের তোষণ শুরু করেছে কেজরিওয়াল। কেজরিওয়াল দিল্লিতে ৩৫০ টি মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছে এবং আরো মন্দিরের বিদুৎ সংযোগ কেটে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। হিন্দুদের উপর এই উৎপীড়নের বিরুদ্ধে একমাত্র বিজেপি পার্টি প্রতিবাদ জানিয়েছে বাকি সমস্ত পার্টি মুখে কুলুপ এঁটেছে বলেও অভিযোগ সামনে এসেছে।

8 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.