Press "Enter" to skip to content

সীমা ছাড়ালেন কেজরিওয়াল!প্রধানমন্ত্রী মোদীকে নিয়ে আপত্তিজনক মন্তব্য করলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশদ্রোহী আখ্যা দিয়ে দিয়েছেন। বিগত দিনে দিল্লী পুলিশ নিজেদের তদন্ত শেষ করে আদালতে চার্জসিট দাখিল করেছিল। JNU পরিসরে বামপন্থী ছাত্রনেতা কানাইয়াকুমার ও বাকিকিছু ছাত্রনেতা দেশদ্রোহী শ্লোগানবাজি করেছিল সেই ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করেছিল দিল্লী পুলিশ। আদালতে চার্জসিট পেশ করার পর আদালত পুলিশকে দিল্লী সরকারের NOC জমা দেওয়ার জন্য বলে। আদালত জানাই যে চার্জসিটের সাথে অবশ্যই দিল্লী সরকারের NOC থাকতে হবে।

এরপর থেকে দিল্লী পুলিশ লাগাতার কেজরিওয়াল সরকারের থেকে NOC পাওয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। যদিও কেজরিওয়াল সরকার বামপন্থী ছাত্রদের দেশদ্রোহী মামলায় কোনোভাবেই NOC দিতে রাজি হয়নি। কানাইয়া কুমার ও বাকি নেতাদের বিরুদ্ধে পুলিশ সমস্থ প্রমান পেয়ে এখন একশন শুরু করলেও, আদালত ও দিল্লীর কেজরিওয়াল সরকারের বাধা পুলিশ অতিক্রম করতে সক্ষম হয়নি।

শুধু এই নয়, আম আদমি পার্টির মুখ্যনেতা কেজরিওয়াল বামপন্থী নেতা কানাইয়া কুমারকে দেশদ্রোহী মানতে অস্বীকার করেছে এবং উল্টে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশদ্রোহী বলে দিয়েছেন। আম আদমি পার্টি তাদের আধিকারিক টুইটার হ্যান্ডেল থেকে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেশদ্রোহী বলেছেন।

কেজরিওয়াল তার ইঙ্গিতের মাধ্যম সাফ করে দিয়েছে যে তিনি কানাইয়া কুমারের সমর্থনে থাকবেন এবং দিল্লী পুলিশের কাজে বাধা প্রদান করে NOC প্রদান করতে দেরী করবেন। জানিয়ে দি কেজরিওয়ালের পার্টির নাম আম আদমি পার্টি হলেও এটা বামপন্থীদের আরেক রূপ যারা বামপন্থী নীতিতে দেশকে লুটে। প্রধানমন্ত্রী। অবশ্য মোদীকে এমন অপমান করা নিয়ে সম্পূর্ণ নিশ্চুপ হয়ে রয়েছে দেশের বুদ্ধিজীবী ও অসহিষ্ণু গ্যাং।

9 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.