Press "Enter" to skip to content

মহিলাদের মাথায় বুদ্ধি কম, ওরা আইএএস হওয়ার যোগ্য নাঃ সিপিএম বিধায়ক

কেরলের মন্নারে মার্ক্সবাদী কমিউনিস্ট পার্টির এক বিধায়ক মহিলা আইএএস অফিসারের উপর কটূক্তি করে কাঠগড়ায়। সিপিআইএম বিধায়ক এক ব্যাবসায়ী কমপ্লেক্সে অবৈধ নির্মাণ বন্ধ করার চেষ্টা করার জন্য যুব মহিলা আইএএস অফিসারকে চরম কটূক্তি করেন। উনি বলেন, ‘মহিলাদের মাথায় অত বুদ্ধি নেই যে তাঁরা আইএএস অফিসার হওয়ার যোগ্যতা হাসিল করবে”

বিধায়ক

গত শুক্রবার কিছু টেলিভিশন চ্যানেলে কেরলের দেবীকুলম এর বিধায়ক এস রাজেন্দ্রন এর একটি ভিডিও ফুটেজ প্রসারিত করে। সেই ভিডিওতে সাব কালেক্টর ডঃ রেনু রাজ এর বিরুদ্ধে সিপিআইএম বিধায়ক এস রাজেন্দ্রন মাথায় বুদ্ধি না থাকার টিপ্পনী করেন।

IAS Renu Raj

রাজেন্দ্রন বলেন, ‘এটা প্রথমবার ঘটল যে সরকারই সরকারের কাছে এনওসি চাইছে” উনি মহিলা আইএএস অফিসারকে কটূক্তি করে বলেন, আপনারা শুধু কালেক্টর হওয়ার জন্য পড়াশুনা করেছেন। মহিলাদের মাথায় বুদ্ধি অনেক কম, আপনারা আইএএস হওয়ার যোগ্য নন।

বিধায়ক আইএএস অফিসারের উপর গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে খর্ব করার অভিযোগ আনেন। বিধায়ক সেখানে উপস্থিত মানুষদের প্রায় উস্কানির সূরে বলেন, এই কালেক্টর পঞ্চায়েত নির্মানে দখল দিতে পারেনে। উনি এটা করে গণতন্ত্রের শ্বাস রোধ করার চেষ্টা করছেন।

দেবীকুলম এর সাব কালেক্টর রেনু রাজ মিডিয়াকে জানান, ‘অবৈধ নির্মাণ নিয়ে পঞ্চায়েতকে ৬ই ফেব্রুয়ারি একটি নোটিশ জারি করা হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও সেখানে কাজ চালু ছিল। সিপিএম বিধায়কের ওই উক্তির পর আমি নিরাশ হয়ে গেছিলাম। কিন্তু জনতা আর মিডিয়া আমার পাশে দাঁড়িয়ে আমাকে সাহস জুগিয়েছে।”

তবে সাব কালেক্টরের সমর্থনে দাঁড়িয়েছেন রাজ্যের রাজস্ব মন্ত্রী। উনি বলেন, ‘সাব কালেক্টরের সিদ্ধান্ত আইনের দায়েরাতেই ছিল। উনি যখন আইন মেনেই কাজ করছিলেন, আমাদের ও উচিৎ ওনাকে সমর্থন করা” আপানদের জানিয়ে রাখি, ২০১০ সালে কেরল হাইকোর্ট একটি আদেশ জারি করে বলেছিল। মুন্নার এলাকায় যেকোন নির্মাণ এর জন্য নো অবজেকশন সার্টিফিকেট এর দরকার। যদি সেটি না থাকে, তাহলে সেই নির্মাণ কে অবৈধ বলে গণ্য করা হবে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *