in , ,

কাশ্মীরের মেয়ে পাথরবাজদের দমনে নামছে CRPF এর মহিলা কামান্ডোর! পাথর ছুঁড়লেই দেওয়া হবে থার্ড ডিগ্রী!

CRPF অর্থাৎ সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স জম্মুকাশ্মীরে পাথরবাজদের দমন করার বিশেষ ব্যবস্থা নিতে চলেছে। এই মাসের মধ্যবর্তী সময়ে ৮০০ এর বেশি সংখ্যক মহিলা কামান্ডোর নিয়ে একটা ইউনিট নামানো হবে। যেহেতু পাথরবাজদের মধ্যে মহিলাদের সংখ্যা দ্রুতগতিতে বাড়ছে তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই তথ্য কেন্দ্রীয় অর্ধসৈনিক অধিকারিকরা জানিয়েছেন।

জম্মুকাশ্মীরে রাজ্যপুলিশ এবং CRPF একসাথে মিলে কাজ করে। ছেলে পাথরবাজদের দমনের জন্য টিম বেশ ভালোভাবেই কাজ করতে পারে কিন্তু মহিলা পাথরবাজ সামনে এলে সমস্যায় পড়তে হয়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যেই মহিলা কামান্ডোরদের ইউনিট নামানোর সিধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমনিতে CRPF মহিলা পাথরবাজদের ধরলে তাদের মারধর করে না বরং তাদেরকে গেপ্তার করার পর তাদের মা বাবাকে ইনফর্ম করা হয়। মা, বাবা এলে তাদেরকে ওয়ার্নিং দুয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

তবে পুরুষ পাথরবাজদের থার্ড ডিগ্রি দিয়ে শিক্ষা প্ৰদান করা হয়। যদিও মানব অধিকার কমিশন এক্ষেত্রে সেনার বিরোধ করে। মানবাধিকার কমিশন চাই না যে সেনা  পাথরবাজদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিক।
জানিয়ে দি, মহিলা কামান্ডোর ইউনিটকে প্লাস্টিক বুলেট ও ​​পাথর ভরা ইউনিট কর্মীদের, হেলমেট, লাঠি, টিয়ার গ্যাস, শটগান , সেইসাথে Pelargonik অ্যাসিড Venilil amide (PAVA) গ্রেনেড উপলব্ধ করানো হবে। পাথরবাজদের বিশাল ভিড়কে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এই সরঞ্জামগুলি অতি আবশ্যক প্রয়োজন হয়ে থাকে।

এক আধিকারিক জানান যে, প্রায় ৮০০ জন মহিলা কামান্ডোরদের এখন ট্রেনিং চলছে, ট্রেনিং সম্পন্ন হলেই ১৫ দিনের মধ্যে জম্মুকাশ্মীরে তাদের নিযুক্ত করে দেওয়া হবে। উনি বলেন, পাথরবাজিতে মহিলারা সামিল থাকলে সেটাকে নিয়ন্ত্রণ করা সংবেদনশীল হয়ে উঠে যার জন্য মহিলা কামান্ডোর অতি আবশ্যিক

বড়সড় সাফল্য সেনার, কাশ্মীরে সেনার এনকাউন্টারে খতম পুলওয়ামা হামলার মাস্টার মাইন্ড সাজ্জাদ

প্রধানমন্ত্রী মোদী পারমাণবিক হামলার আদেশ দিলে এই সময়ের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে পাকিস্থান!