Press "Enter" to skip to content

ভাইরাল ভিডিও: জনগণ কানহাইয়া কুমারকে জিজ্ঞাস করলো ” কিসের আজাদী চাই ? ” কানাইহা ভয়ে বললো ..

বিহারের বেগুসরাইয়ে (begusarai lok sabha) কমিউনিস্ট পার্টির টিকিটে নির্বাচন লড়াই করা বামপন্থী ছাত্র নেতা তথা টুকড়ে টুকড়ে গ্যাং এর প্রধান কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে জনতার বিক্ষোভের মুখে পড়লেন। দামি গাড়ি করে বেরোজগার কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) রোড শো করছিলেন, আর সেই সময় এলাকার মানুষ তাঁর গাড়ি থামায়।

তাঁর গাড়ি থামিয়ে এক ব্যাক্তি জিজ্ঞাসা করেন, ‘ আপনি কিরকম আজাদি চাইছেন? দেশের গরিবেরা আজাদ ঘুরছে না? গরীবদের কে আটকে রেখছে?” ওই ব্যাক্তি এখানেই থেমে না থেকে আরও বলেন, ‘ আপনি আমাদের নেতা হতে চাইছেন … ভালো কথা। কিন্তু দেশে যখন উচ্চবর্ণের গরীবদের ১০ শতাংশ সংরক্ষণ দেওয়া হচ্ছিল, তখন আপনি সেটার বিরোধিতা করেছিলেন কেন?”

ওই ব্যাক্তি আরও বলেন, ‘ ভারত তেরে টুকড়ে হোঙ্গে… ইনশাল্লাহ … ইনশাল্লাহ এর স্লোগান আপনি দিয়েছিলেন।” ওই ব্যাক্তির এই প্রশ্নের পর কানহাইয়া কুমার (Kanhaiya Kumar) ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে আর ক্ষোভে ফেটে পরে ওই ব্যাক্তিকে বিজেপির সমর্থক বানিয়ে দেন!

কানহাইয়া কুমারের উত্তরে ওই ব্যাক্তি বলেন, ‘ আমি কোন দলের সমর্থক না। আমি নোটার সমর্থক।” এরপরেই সেখানে দেশদ্রোহী মুর্দাবাদের স্লোগান ওঠে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও চরম ভাইরাল হচ্ছে।

উল্লেখনীয়, এটাই প্রথমবার না যে কানহাইয়া কুমার মানুষের ক্ষোভের মুখে পড়লেন। এর আগেও বহুবার দেশ বিরোধী মন্তব্য করার জন্য দেশের জনতার ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছিল বামপন্থী ছাত্র নেতা কানহাইয়া কুমার কে।

মনে রাখবেন এই সেই ছাত্র নেতা, যিনি আর যার গ্যাং জওহর লাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে দেশ বিরোধী স্লোগান দিয়ে শিরোনামে উঠে এসেছিলেন। এমনকি ইনিই সেই নেতা, যিনি সেনা বাহিনীকে ধর্ষক বলেছিলেন! ইনি আর এনার দল নিজেকে গরিব বলেন, কিন্তু নির্বাচনী প্রচারের জন্য ৭০ লক্ষ টাকা জমা দেওয়া থেকে শুরু করে। বিদেশী দামি গাড়িতে করে প্রচার করেন তিনি। এমনকি এক শহর থেকে আরেক শহরে যাওয়ার জন্য বিমানের ব্যাবহার করেন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *