Press "Enter" to skip to content

বড় খবর – 2019 এ মোদীকে হারাতে এবার বাংলায় জীগনেশকে পাশে চান মমতা – Bengal News

আর মাত্র কয়েক মাসের অপেক্ষা। তারপরই আমাদের দেশে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচন। লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশের সমস্ত রাজনৈতিক দল তাদের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। বিজেপি বেশ শক্তিশালী দল। বিজেপি সরকার দেশে ভালো কাজ করার সুবাদে এখন সারা দেশের জনগনের কাজে সবচেয়ে জনপ্রিয় দল। তাদের ধারেকাছে ঘেষতে পারছে না অন্য রাজনৈতিক দল গুলি। তাই দেশের সমস্ত রাজনৈতিক দল এখন বিজেপিকে আটকাতে একজোট হয়েছে। বলাই যায় এই ভোট কাযত বিজেপি বনাম মহাজোট। কিন্তু এতজোট করেও যে বিজেপি কে আটকানো যাবে না। কারন দেশের সাধারণ মানুষ এখন বিজেপি ছাড়া অন্য কাউ কে দেখছেন না। সেটা অন্য বিরোধী দল গুলি ভালো করেই বুঝে গেছেন। তাই কিছুটা ভয় পেয়েই আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতাবন্দ্যোপাধ্যায় এবার জোট করার জন্য পরিকল্পনা করছেন জিগনেশ মেওয়ানির সাথে যিনি গুজরাতের দলিত নেতা।

আরো খবর পড়ুন – এবার রোহিঙ্গা মুসলিমদের সমর্থনে বুদ্ধিজীবী ও বামপন্থীরা যা বললো শুনলে আপনিও রেগে লাল হবেন

তাই সোমবার মমতা ব্যানার্জি একান্তে বৈঠক করেন জিগনেশ মেওয়ানির সাথে। সেই বৈঠকেই মমতা জিগনেশের সাথে একজোট হওয়ার জন্য প্রস্তাব দেন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন যে, মমতা ব্যানার্জি হল বিরোধী জোটের মুখ। তিনি বিজেপি কে আটকানোর জন্য সমস্ত ছোটো দল গুলির সাথে আলোচনা করছেন।

জিগনেশ মেবানী - Jignesh Mevani
– Jignesh Mevani

শোনা যাচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেডে সভার করার কথা জানিয়েছেন। সেখানে উপস্থিত থাকবেন দেশের অন্যান্য রাজ্যের বিরোধী নেতা সহ জিগনেশ।

আপনাদের জানিয়ে দি, এই জীগনেশ হলো সেই টুকরো টুকরো গ্যাং এর মধ্যে একজন ,

1) যারা বলে কাশ্মীর পাকিস্তানের অংশ ও কাশ্মীরকে ভারতের ছেড়ে দেওয়া উচিত, যারা বলেছিলো ” আফজল আমরা লজ্জিত, আপনার খুনি এখনো বেঁচে আছে ” এরা খুনি মানে ভারতের সংবিধান !

2) যারা ভারতীয় সেনাকে রেপিস্ট বলে, সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে মিথ্যে বলে অপমান করেছিলো

3) যারা দলিত নেতা নামে পরিচিত হলেও, দলিতদের জন্য কিছু না করলেও নিজেরা কোটি কোটি টাকার মালিক পরিণত হয়েছে ,

4) যারা ভারতের দলিতদের বোকা বানিয়ে যেমন তাদের ভারত সরকারের বিরুদ্ধে করে তোলে তেমনই হিন্দুদেদ মধ্যে বিভেদের সৃষ্টি করে, ও হিন্দুদের দুর্বল করে দেয় !

5) এরা তারাই যারা ভিমা করেগাও হিংসা অর্থাৎ দাঙ্গা লাগানোর মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন ! এককথায় ভারতের সবথেকে দেশদ্রোহী ও ভারত বিরোধী গ্যাং !

মমতা ব্যানার্জী - Mamata Banerjee

জিগনেশ একটি সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দেন। সেখানে তিনি জানান যে, বাংলায় ২৭ শতাংশ দলিত মানুষ রয়েছেন তাদের জন্য ঠিকঠাক কাজ করতে পারছেন না এই মমতার সরকার। ফলে তিনি ভয় পাচ্ছেন যে নিয়ে। তাই তিনি রাজ্যের সমস্ত ভোট দলিত ভোট পেতে আমাকে আহ্বান জানিয়েছেন মহাজোটে যোগদান করার জন্য। একবার ভাবুন যদি এই জিজ্ঞেস বাংলায় আসে তাহলে বাংলার হিন্দুদের ভেঙে দলিত ও মধ্যম, ব্রাহ্মণে ভেঙে দেবে কেবল তাইই নয় বিভিন্ন জায়গায় দাঙ্গা হবে এটাই স্বাভাবিক !
#অগ্নিপুত্র