Press "Enter" to skip to content

মমতা ও মাওবাদীদের নিয়ে বড়ো পর্দাফাঁস করলেন মুকুল রায়। মমতার নির্দেশেই চলেছিল মাওবাদীরা?

রাজ্যে যখন এর রাজত্ব ছিল তখন সেই সময়কার বিরোধী নেত্রী ছিলেন মমতা। তখন মমতা ব্যানার্জি নানারকম কৌশল অবলম্বন করতেন যাতে কে রাজ্য থেকে সরানো যায়। তাই সেই সময় নন্দীগ্রামে মমতা মাওবাদীদের সাহায্য নিয়েছিল কে আটকানোর জন্য। এমনকি সেই সময় এই মমতা ব্যানার্জি-ই মাওবাদীদের নির্দেশ দিয়েছিল নন্দীগ্রামে রাস্তা কেটে দেওয়ার জন্য। প্রাপ্তন তৃনমূল নেতা ও মমতার সবচেয়ে কাছে নেতা এবং বর্তমান বিজেপি নেতা বুধবার বনধের শেষে এমনই মন্তব্য করলেন। এই দিন সরাসরি তৃনমূলের প্রেমের কথা তুলে ধরেন সকলের সামনে। রাজ্যে তখনকার বিরোধী দল তৃনমূল কংগ্রেস নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলন সহ জঙ্গল মহলে লালগড় আন্দোলন কোনো কিছুতেই পেরে উঠছিলেন না সিপিএম এর সাথে।

তাই সেই সময় মাওবাদীদের সাহায্য নিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস। এর আগেও আমাদের রাজ্য রাজনীতিতে তৃণমূলের সাথে মাওবাদী যোগ প্রকাশ্যে চলে আসে বহুবার। এমনকি একবার মাওবাদী নেতা কিষানজি প্রকাশ্যে বলেই ফেলেছিলেন যে, তারা মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান তৃনমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কিন্তু মমতার সাথে যে মাওবাদীদের সরাসরি যোগ রয়েছে এমনটা এর আগে কেউ সরাসরি বলার সাহস পাই নি।

Mamata Banerjee

তখনকার বিরোধী দল গুলি নানা প্রকারে সেটা বোঝানোর চেষ্টা করলেও ইতিপূর্বে এইভাবে মুকুল রায় যেমন সরাসরি বলে দিলেন যে মাওবাদীদের সাথে সরাসরি মমতার যোগ রয়েছে এমনটা কেউ বলে নি। কিন্তু এতদিনে মুকুল রায় সরাসরি অভিযোগ করলেন। তিনি বললেন যে, নন্দীগ্রামে যখন মমতা আর পেরে উঠছিল না সিপিএম এর সাথে তখন তিনি মাওবাদীদের নির্দেশ দেন সেখানকার রাস্তা কেটে দেওয়ার জন্য।

Mukul Roy
- মুকুল রায়

রাজ্যের বর্তমান মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি যাকে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের মুখ হিসাবে ধরা হয় তাকে এই দিন ফোন করা হলে তিনি ফোনটি তোলেন নি। এই ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তৃনমূলের অনেক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতার সাথে যোগাযোগ করা হলেও তারা কেউই এই ব্যাপারে মুখ খুলতে রাজি নন এমনটাই দাবি কিছু নিউজ পোর্টালের।
#অগ্নিপুত্র