Press "Enter" to skip to content

“বাবরি মসজিদ ভাঙা ঠিক হয়নি”-হিন্দুদের উপর বড়ো অভিযোগ আনলেন মনমোহন সিং।

বাবরি মসজিজের উপর দেশের পূর্ব বড়ো মন্তব্য করেছেন। সেকুলারিজম(ধর্মনিরপেক্ষতা) এর উপর ভাষণ দিচ্ছিলেন কিন্তু সেখান থেকে উনি ের উপর চলে আসেন। বিগত দিনে এবি বর্ধন নামক এক বামপন্থী নেতা মৃত্যু হয়। ওই নেতার স্মরণে একটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল যেখানে মনমোহন সিংকেউ আমন্ত্রণ করা হয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে সেকুলারিজমের উপর নিজের ভাষণ দিচ্ছিলেন। স্বর্গীয় বামপন্থী নেতাকে স্মরণ করার সাথে সাথে উনি বাবরি মসজিদকেও স্মরণ করেন এবং এটাকে ইতিহাসের সবথেকে দুঃখজনক দিন বলে ব্যাক্ত করেন।

মনমোহন সিং বলেন, বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলা হয়েছিল যারপর আমাদের সেকুলারিজমের উপর প্রশ্ন উঠেছিল এবং আমরা লজ্জিত হয়েছিলাম। মনমোহন সিং বলেন উনি ৬ ডিসেম্বর ১৯৯২ এর ঘটনাকে কোনোদিন ভুলতে পারবেন না। ওই দিন এতটাই যন্ত্রণাদায়ক ছিল যে আজও মনের মধ্যে ব্যাথা দিয়ে উঠে আসে বলে জানান মনমোহন সিং।
আপনাদের জানিয়ে দি, বাবরি মসজিদ প্রেমী মনমোহন সিং ১৯৮৪ সালে দ্বারা ১০ হাজার শিখ হত্যার উপর সবসময় নিশ্চুপ রয়েছেন।

বাবরি মসজিদ ভাঙার দুঃখ উনার মনে আজও রয়েছে রয়েছে কিন্তু ১০ হাজার শিখ হত্যার উপর উনার মনে কোনোদিন দুঃখ আসেনি। এটাও সত্য যে বাবরি মসজিদের স্থানে যদি সিকজ হত্যার উপর দুঃখ আসতো তাহলে সোনিয়া গান্ধী(আন্তোনিয়া মিয়ানো) মনমোহন সিং মহাশয়কে কংগ্রেস থেকে বাতিল করে দিতেন।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, কংগ্রেস বরাবর মুসলিম তোষণে বিশ্বাসী এবং তোষণ করতে গিয়েই কংগ্রেস ধর্মের নামে দেশভাগ করার পর ভারতকে ধর্মনিরপেক্ষ দেশ বলে ঘোষণা করেছে যার জন্য আজও নির্মাণের জন্য আদালতের দ্বারস্থ হতে হয়। দেশের পুরো হিন্দু সমাজ যেখানে তৈরির দাবি করে সেখানে কংগ্রেসের উকিল কপিল সিব্বল তৈরির বিরোধিতা করে, মসজিদ তৈরির পক্ষপাতীত করে।

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, রাম মন্দির নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট থেকে একটা বড়ো খবর আসছে। জানা যাচ্ছে এবার থেকে সুপ্রিম কোর্টে রাম মন্দিরের উপর যেসব শুনানি হবে তা লাইভ টেলিকাস্ট দেখানো হবে। কংগ্রেস আদালতের মধ্যে ভগবান রামের অস্থিত নিয়ে প্রশ্ন উঠায় আর বাইরে এসে রাজনীতি করে। এখন লাইভ টেলিকাস্ট করা হলে সমস্থকিছু দেশের জনগণ সাফ দেখতে পাবে যা কংগ্রেসের জন্য বড়ো ধাক্কা হবে।

পাঠকদের জন্য প্রশ্নঃ মনমোহন সিং এর মন্তব্য কতটা যুক্তিযত?