Press "Enter" to skip to content

কেজরিওয়াল ভিক্ষা চাওয়ায়, শর্ত রেখে ১,১১,১০০ টাকা দান করতে চাইলেন বিজেপি সংসদ মনোজ তেওয়ারি।

গত বারের লোকসভা নির্বাচনে অর্থাৎ ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে অনেক চর্চা হয়েছিল ের ‘আম আদমি পার্টি’ কে নিয়ে। বেনারস থেকে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন এবং তিনি এটা বোঝাতে চেয়েছিলেন যে, তিনিও হলেন একজন চরম প্রতিযোগী প্রধানমন্ত্রী হবার জন্য। ‘আম আদমি পার্টি’-র নির্বাচনের প্রতীক ছিল ‘ঝাঁটা।’ এই ঝাঁটা প্রতীক নিয়েই তিনি নির্বাচনে লড়াই করেছিলেন। কেজরিবাল তার পার্টি কে স্বচ্ছ দেখানোর জন্য তার দলের অর্থদাতা দের নাম প্রকাশ করেছিলেন ওয়েব সাইটে। তার এইসকল কাজ অনেক মানুষের মন জয় করেছিল, তার ফলে ২০১৩ সালে এবং ২০১৫ সালের উপ নির্বাচনে তিনি দিল্লি তে জয়লাভ করেছিলেন।

আরো পড়ুন – তালিব হোসেন কাঠুয়ার মেয়েটিকে রেপ করে মন্দিরের পাশে ফেলেছিল ? সিরিয়াল রেপিস্ট তালিব হুসেন

কিন্তু কেজরিবাল যে একদমই সৎ লোক ছিলেন না সেটা বুঝতে দিল্লিবাসীর বেশি সময় লাগে নি। মাত্র এক বছরের মধ্যেই কেজরিবাল সহ আম আদমি পার্টির নেতামন্ত্রীদের মুখোশ খুলে যায়। মুখোশের আড়ালে তাদের ভয়ানক মুখগুলি জনগনের সামনে বেরিয়ে আসে। যে দৃশ্যের কল্পনা করতে পারে নি দিল্লিবাসী সেই দৃশ্য দেখে রীতিমত চমকে গিয়েছিলেন তারা। এত অসৎ লোকে ভরতি ছিল আম আদমি পার্টি যে সেটা কল্পনাও কারা যায় না। অনেক নেতামন্ত্রী দুর্নীতির অভিযোগ তুলে দল ত্যাগ করেছেন, আবার অনেকে অন্য দলের সাথে নাম লিখিয়েছেন।

– অরবিন্দ কেজরিবাল

সামনেই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনের আগে আম আদমি পার্টির অবস্থা খুব খারাপ। দলের অর্ধেক নেতা জড়িয়ে রয়েছেন বিভিন্ন আর্থিক দুর্নীতিতে। সেই কারনে কেজরিবালের দল এখন আর্থিকভাবে সংকটের মধ্যে রয়েছে। তাদের আর্থিক অবস্থা এখন এতটাই খারাপ যে, নির্বাচনে সামনে থাকা সত্ত্বেও কোনো ব্যক্তি এই পার্টিকে ফান্ডিং করতে রাজি নয়।

আরো পড়ুন – মুসলিম, খ্রিষ্টান মেয়েরা অপবিত্র করছে সবরিমালা মন্দির ! বামপন্থী সরকার দিচ্ছে সুরক্ষা ..।

এইরকম পরিস্থিততে দাড়িয়ে দিল্লিতে অবস্থিত তালকাটোরা স্টেডিয়ামে নতুন একটি মোবাইল নম্বর চালু করলেন কেজরিবাল সরকার। এই নাম্বার চালু করে তিনি দেশের সাধারণ জনগনের কাছে আর্থিক সাহায্য চাইছেন। তিনি এই তহবিলটির নাম দিয়েছেন ‘কাঙাল।’ তিনি দলের নেতামন্ত্রীদের কাছে আবেদন করেছেন যে, যাতে সবাই লোকসভা নির্বাচন কে মাথায় রেখে প্রতিমাসে সেই তহবিলে টাকা জমা করেন।

কেজরিবাল সরকারের এইরকম অবস্থা দেখে সুযোগ না উঠিয়ে থাকতে পারেন নি সাংসদ মনোজ তিওয়ারি মহাশয়। এই মনোজ তিওয়ারি মহাশয় একজন নামকরা ভোজপুরি গায়কও বটেন। তিনি কেজরিবালের এই পরিস্থিতিতে তার পার্টি কে ১ লক্ষ ১১ হাজার ১ শতক টাকা দান করার ঘোষণা করেছেন শর্ত এই যে দিল্লি মেট্রোর চতুর্থ ফেজ পাশ করিয়ে দিতে হবে। তিনি জানিয়েছেন যে, এই মুহুত্তে আম আদমি পার্টির অনেক নেতামন্ত্রী জড়িয়ে রয়েছেন বিভিন্ন অসামাজিক কাজকর্মে, দলের মুখ্যমন্ত্রী কেজরিবালের অবস্থা খুবই শোচনীয় তাই আমি এই অর্থ দান করতে চাই এই শর্তে। আমি আসা করছি যে আমার দান করা অর্থ উনারা সঠিক কাজেই লাগাবেন এবং দিল্লি বাসীকে সঠিকভাবে পরিচালনা করবেন।
#অগ্নিপুত্র