অবাক কাণ্ড‍! প্রিয়ঙ্কা বঢড়ার রোড শো চলাকালীন চুরি হলো বহু মানিব্যাগ আর গোটা পঞ্চাশ মোবাইল!

কংগ্রেস মহাসচিব প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়া সোমবার উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লখনউ তে একটি রোড শো করেন। লোকসভা নির্বাচনের ডঙ্কা বাজাতে প্রিয়াঙ্কা তাঁর ভাই তথা কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে সঙ্গে নিয়ে লখনউ এর রাস্তায় রোড শো করেন।

কংগ্রেসের কর্মীরা ওনাকে দেখার জন্য রাস্তায় ভিড় জমিয়েছিল, কিন্তু প্রত্যাশা মত ভিড় হয়নি সেই অনুষ্ঠানে। আর ভিড় কম হওয়ার জন্য কংগ্রেসের নেত্রী প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী তেলেঙ্গানার একটি ভিড়ের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে প্রিয়াঙ্কার সভার ছবি বলে দাবি করেন। আর তারপর এই ভুয়ো ছবির জন্য ওনাকে নিয়ে চরম ট্রোল ও হয়।

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে দেখার পর অনেকেই তাঁদের মুঠোফোন বের করে ছবি তুলতে থাকেন। কিন্তু সেই অবসরে ৫০ এর বেশি মানুষের মুঠোফোন চুরি যায়। আর বহু মানুষের মানি ব্যাগ ও খোয়া যায়। যেহেতু অনুষ্ঠানটা কংগ্রেসের ছিল। তাই স্বভাবত ভিড়ে থাকা মানুষগুলো কংগ্রেস দলেরই হবে। আর সেই ভিড়ের মধ্যে লুকিয়ে থাকা চোর গুলোও কংগ্রেস দলেরই সমর্থক অথবা কর্মী হবেন।

তবে নিজের দলের লোকের মানি ব্যাগ আর ফোন চুরি করাটা কিন্তু ঠিক না। আসলে প্রিয়াঙ্কার রোড শো লখনউ এয়ারপোর্ট থেকে কংগ্রেসের কার্যালয় পর্যন্ত যেত। আর সেই সময় অনেক মানুষই তাঁদের সাথে হেঁটে হেঁটে যাচ্ছিল। আর সেই সুবাদেই চোরেরা মোবাইল ও মানি ব্যাগ গায়েব করে দেয়। প্রিয়াঙ্কার রোড শো সরোজীনগর থানা এলাকায় পৌঁছালেই অনেক কর্মীদের পকেট থেকে মোবাইল আর মানি ব্যাগ গায়েব এর খবর পাওয়া যায়।

কংগ্রেস কর্মীরা ওই এলাকায় একজনকে মোবাইল চোরের অভিযোগে ধরেছিল। আর তাঁরা সেই ব্যাক্তিকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছিল। যদিও সে কংগ্রেস কর্মী হওয়ার সুবাদে আর তাঁর কাছে কোন মোবাইল না পাওয়াতে পুলিশ তাকে ছাড়তে বাধ্য হয়।

কংগ্রেসের কর্মী অভিষেক সিং বলেন, ওনার কাছে কম করে পঞ্চাশ জনের মোবাইল চুরির অভিযোগ জানিয়েছেন। আর বহু মানুষ মানি ব্যাগ চুরির অভিযোগ অ করেছেন। উনি বলেন, আমরা এই ব্যাপারে সরোজিনীনগর থানায় জানিয়েছে। থানা থেকে সঠিক তদন্ত হওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

Leave a Reply

you're currently offline

Open

Close